ঢাকা ১২:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আমলকীর যত গুণ

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:২৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৫২২ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আমলকী, হরিতকি ও বহেড়াকে একত্রে বলা হয় ত্রিফলা। এই ত্রিফলা স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। ত্রিফলা সারা রাত ভিজিয়ে সকালবেলা খালি পেটে খান। দেখবেন আপনার পেটের অনেক অসুখ ভালো হয়ে যাবে। এ ছাড়া শরীরে ভিটামিন সি ঘাটতি মিটিয়ে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে আমলকীর জুড়ি নেই। আসুন জেনে নেই, আমলকীর গুণের কথা-

১. আমলকীর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অন্যান্য ফলের তুলনায় অনেক বেশি। বয়স্কদের জন্যও আমলকী খুব উপকারী। এতে ক্যারোটিন থাকায় দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এ ছাড়া ছানি পড়া, চোখে চুলকানি বা জল পড়ার সমস্যা থেকে রেহাই দেয়।

২. সাধারণত শরীরে ভিটামিন সি এর অভাবে দাঁতের মাড়ির স্কার্ভি রোগ হয়। এই রোগে মাড়ির দিয়ে রক্ত পড়ে, মাড়িতে এক ধরণের ঘা হয়। প্রতিদিন নিয়ম করে আমলকী খেলে দাঁতের মাড়ির রোগ থেকে পরিত্রাণ পাবেন।

৩. দীর্ঘমেয়াদি সর্দি, কাশি, গলাব্যথা ও জ্বরে পথ্য হিসেবে আমলকী দারুন কাজ করে।

৪. নিয়মিত আমলকী খেলে লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ে। এ ছাড়া পেটের গোলযোগ ও বদহজম রুখতেও সাহায্য করে।

৫. আমলকীতে থাকা ক্রোমিয়াম শরীরের ইনসুলিন উৎপাদনে সাহায্য করে। পাশাপাশি সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৬. চুলের জন্য ওষুধ হিসেবে কাজ করে আমলকী। এতে উপস্থিত অ্যামিনো অ্যাসিড এবং প্রোটিন চুল পড়া রোধ করে ও চুলের গোড়া মজবুত রাখে।

৭. আমলকী খাওয়ার রুচি বাড়ায়। এটি শরীরের খারাপ কোলেস্টেরল দূর করে ধমনীর ব্লক খুলে দেয়। তাই নিয়মিত আমলকি খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি থেকে মুক্তি পাবেন।

৮. আমলকীর রস কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে দূরে থাকতে সহযোগিতা করে। আলসার বা গ্যাস্ট্রিকের সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত। এই রোগে আক্রান্ত হয়নি, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। নিয়মিত আমলকী খেতে আলসার থেকে রক্ষা পাবেন।

৯. আমলকীতে রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধী গুণ। ভিটামিন সি ছাড়াও আমলকীতে আয়রন, ক্যালশিয়াম ও ফসফরাস আছে। তাই আমলকী খেলে শরীরে পুষ্টির জোগান অব্যাহত থাকে।

১০. এ ছাড়া আমলকী হাড় মজবুত করতে ও ত্বক ভালো রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আমলকীর যত গুণ

আপডেট সময় : ০৯:২৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আমলকী, হরিতকি ও বহেড়াকে একত্রে বলা হয় ত্রিফলা। এই ত্রিফলা স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। ত্রিফলা সারা রাত ভিজিয়ে সকালবেলা খালি পেটে খান। দেখবেন আপনার পেটের অনেক অসুখ ভালো হয়ে যাবে। এ ছাড়া শরীরে ভিটামিন সি ঘাটতি মিটিয়ে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে আমলকীর জুড়ি নেই। আসুন জেনে নেই, আমলকীর গুণের কথা-

১. আমলকীর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অন্যান্য ফলের তুলনায় অনেক বেশি। বয়স্কদের জন্যও আমলকী খুব উপকারী। এতে ক্যারোটিন থাকায় দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এ ছাড়া ছানি পড়া, চোখে চুলকানি বা জল পড়ার সমস্যা থেকে রেহাই দেয়।

২. সাধারণত শরীরে ভিটামিন সি এর অভাবে দাঁতের মাড়ির স্কার্ভি রোগ হয়। এই রোগে মাড়ির দিয়ে রক্ত পড়ে, মাড়িতে এক ধরণের ঘা হয়। প্রতিদিন নিয়ম করে আমলকী খেলে দাঁতের মাড়ির রোগ থেকে পরিত্রাণ পাবেন।

৩. দীর্ঘমেয়াদি সর্দি, কাশি, গলাব্যথা ও জ্বরে পথ্য হিসেবে আমলকী দারুন কাজ করে।

৪. নিয়মিত আমলকী খেলে লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ে। এ ছাড়া পেটের গোলযোগ ও বদহজম রুখতেও সাহায্য করে।

৫. আমলকীতে থাকা ক্রোমিয়াম শরীরের ইনসুলিন উৎপাদনে সাহায্য করে। পাশাপাশি সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৬. চুলের জন্য ওষুধ হিসেবে কাজ করে আমলকী। এতে উপস্থিত অ্যামিনো অ্যাসিড এবং প্রোটিন চুল পড়া রোধ করে ও চুলের গোড়া মজবুত রাখে।

৭. আমলকী খাওয়ার রুচি বাড়ায়। এটি শরীরের খারাপ কোলেস্টেরল দূর করে ধমনীর ব্লক খুলে দেয়। তাই নিয়মিত আমলকি খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি থেকে মুক্তি পাবেন।

৮. আমলকীর রস কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে দূরে থাকতে সহযোগিতা করে। আলসার বা গ্যাস্ট্রিকের সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত। এই রোগে আক্রান্ত হয়নি, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। নিয়মিত আমলকী খেতে আলসার থেকে রক্ষা পাবেন।

৯. আমলকীতে রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধী গুণ। ভিটামিন সি ছাড়াও আমলকীতে আয়রন, ক্যালশিয়াম ও ফসফরাস আছে। তাই আমলকী খেলে শরীরে পুষ্টির জোগান অব্যাহত থাকে।

১০. এ ছাড়া আমলকী হাড় মজবুত করতে ও ত্বক ভালো রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।