ঢাকা ০৪:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

একাদশ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোকপ্রস্তাব গৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৩:২৫:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৩০ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

একাদশ জাতীয় সংসদের ৬১ নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস, ১৬০ নেত্রকোনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেবেকা মমিন, সাবেক ধর্মমন্ত্রী মো. মতিউর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ও শহীদ জায়া অধ্যাপিকা পান্না কায়সার এবং সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ উল্যার মৃত্যুতে আজ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এ শোক প্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করেন। শোক প্রস্তাবে সংসদ সদস্যবৃন্দ ও সাবেক ধর্মমন্ত্রী মো. মতিউর রহমানের মৃত্যুতে মহান জাতীয় সংসদ থেকে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করা হয়।

সংসদে শোক প্রস্তাবে আরো বলা হয়, ‘একাদশ জাতীয় সংসদের ৬১ নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস-এর মৃত্যুতে দেশ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও নিবেদিতপ্রাণ সমাজসেবককে হারালো। এ সংসদ তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু.খ প্রকাশ, তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সহমর্মিতা প্রকাশ করছে।’

শোক প্রস্তাবে বলা হয়, ‘একাদশ জাতীয় সংসদের ১৬০ নেত্রকোনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেবেকা মমিন-এর মৃত্যুতে দেশ একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও নিবেদিতপ্রাণ সমাজসেবককে হারালো। এ সংসদ তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ, তার রুহের মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সহমর্মিতা প্রকাশ করছে।’

প্রথা অনুযায়ি সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস ও রেবেকা মমিন-এর স্মরণে সংসদে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নেন।

অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সংসদ উপনেতা বেগম মতিয়া চৌধুরী, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সরকারি দলের সদস্য আমীর হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, ওয়াসিকা আয়শা খান, শফিকুল ইসলাম শিমুল, আব্দুল আজিজ ও সাজ্জাদুল হাসান এবং জাতীয় পার্টির মশিউর রহমান রাঙ্গা।

শোকপ্রস্তাবে স্পিকার বলেন, আমরা ইতোমধ্যে একজন সাবেক মন্ত্রী ও দুইজন সাবেক সংসদ সদস্যকে হারিয়েছি। তারা হলেন- সাবেক ধর্মমন্ত্রী ও ১৪৯ ময়মনসিংহ-৪ আসনে তৃতীয় ও নবম জাতীয় সংসদের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মতিউর রহমান, সপ্তম জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা পান্না কায়সার, তৃতীয় জাতীয় সংসদে, ২৭৬ লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ উল্যা। তাদের মৃত্যুতে মহান জাতীয় সংসদ গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করছে।

স্পিকার বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) সুলতান মাহমুদ, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সিরাজুল আলম খান, একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি মোহাম্মদ রফিক, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু এমপি-র সহধমির্ণী কামরুন্নেছা আশরাফ দীনা, কাজী নাবিল আহমেদ এমপি-র পিতা অধুনালুপ্ত দৈনিক আজকের কাগজ পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক, জেমকন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা কাজী শাহেদ আহমেদ, কানিজ ফাতেমা আহমেদ এমপি-র পিতা কামাল উদ্দিন আহমেদ খান এবং স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য কৃষি বিজ্ঞানী ও কাজী পেয়ারার উদ্ভাবক কাজী এম বদরুদ্দোজার মৃত্যুতে মহান সংসদ গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করছে।

শোক প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপের মাউইতে ভয়াবহ দাবানল, ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যে মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনা এবং দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনায় হতাহতদের স্মরণে মহান জাতীয় সংসদ গভীর শোক প্রকাশ, সকল বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করে।

শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনার পর সর্বসম্মতিক্রমে তা গৃহিত হয়। পরে মৃত্যুবরণকারীদের সম্মানে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সরকারি দলের সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী।

এরপর সংসদের নিয়ম অনুযায়ী বিদ্যমান সংসদের সদস্যের মৃত্যুতে দিনের অন্যসব কার্যসূচি স্থগিত করে সংসদে বৈঠক মুলতবি করা হয়। তবে মন্ত্রীদের জন্য প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

একাদশ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোকপ্রস্তাব গৃহীত

আপডেট সময় : ০৩:২৫:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

একাদশ জাতীয় সংসদের ৬১ নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস, ১৬০ নেত্রকোনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেবেকা মমিন, সাবেক ধর্মমন্ত্রী মো. মতিউর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ও শহীদ জায়া অধ্যাপিকা পান্না কায়সার এবং সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ উল্যার মৃত্যুতে আজ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এ শোক প্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করেন। শোক প্রস্তাবে সংসদ সদস্যবৃন্দ ও সাবেক ধর্মমন্ত্রী মো. মতিউর রহমানের মৃত্যুতে মহান জাতীয় সংসদ থেকে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করা হয়।

সংসদে শোক প্রস্তাবে আরো বলা হয়, ‘একাদশ জাতীয় সংসদের ৬১ নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস-এর মৃত্যুতে দেশ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও নিবেদিতপ্রাণ সমাজসেবককে হারালো। এ সংসদ তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু.খ প্রকাশ, তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সহমর্মিতা প্রকাশ করছে।’

শোক প্রস্তাবে বলা হয়, ‘একাদশ জাতীয় সংসদের ১৬০ নেত্রকোনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেবেকা মমিন-এর মৃত্যুতে দেশ একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও নিবেদিতপ্রাণ সমাজসেবককে হারালো। এ সংসদ তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ, তার রুহের মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সহমর্মিতা প্রকাশ করছে।’

প্রথা অনুযায়ি সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস ও রেবেকা মমিন-এর স্মরণে সংসদে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নেন।

অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সংসদ উপনেতা বেগম মতিয়া চৌধুরী, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সরকারি দলের সদস্য আমীর হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, ওয়াসিকা আয়শা খান, শফিকুল ইসলাম শিমুল, আব্দুল আজিজ ও সাজ্জাদুল হাসান এবং জাতীয় পার্টির মশিউর রহমান রাঙ্গা।

শোকপ্রস্তাবে স্পিকার বলেন, আমরা ইতোমধ্যে একজন সাবেক মন্ত্রী ও দুইজন সাবেক সংসদ সদস্যকে হারিয়েছি। তারা হলেন- সাবেক ধর্মমন্ত্রী ও ১৪৯ ময়মনসিংহ-৪ আসনে তৃতীয় ও নবম জাতীয় সংসদের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মতিউর রহমান, সপ্তম জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা পান্না কায়সার, তৃতীয় জাতীয় সংসদে, ২৭৬ লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ উল্যা। তাদের মৃত্যুতে মহান জাতীয় সংসদ গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করছে।

স্পিকার বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) সুলতান মাহমুদ, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সিরাজুল আলম খান, একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি মোহাম্মদ রফিক, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু এমপি-র সহধমির্ণী কামরুন্নেছা আশরাফ দীনা, কাজী নাবিল আহমেদ এমপি-র পিতা অধুনালুপ্ত দৈনিক আজকের কাগজ পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক, জেমকন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা কাজী শাহেদ আহমেদ, কানিজ ফাতেমা আহমেদ এমপি-র পিতা কামাল উদ্দিন আহমেদ খান এবং স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত বরেণ্য কৃষি বিজ্ঞানী ও কাজী পেয়ারার উদ্ভাবক কাজী এম বদরুদ্দোজার মৃত্যুতে মহান সংসদ গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করছে।

শোক প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপের মাউইতে ভয়াবহ দাবানল, ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যে মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনা এবং দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনায় হতাহতদের স্মরণে মহান জাতীয় সংসদ গভীর শোক প্রকাশ, সকল বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করে।

শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনার পর সর্বসম্মতিক্রমে তা গৃহিত হয়। পরে মৃত্যুবরণকারীদের সম্মানে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সরকারি দলের সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী।

এরপর সংসদের নিয়ম অনুযায়ী বিদ্যমান সংসদের সদস্যের মৃত্যুতে দিনের অন্যসব কার্যসূচি স্থগিত করে সংসদে বৈঠক মুলতবি করা হয়। তবে মন্ত্রীদের জন্য প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপন করা হয়।