ঢাকা ০৭:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে সবচেয়ে বেশি আফ্রিকার শিশুরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:৫৯:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৬৬ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে অতি উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে আফ্রিকা মহাদেশের ৯৮ শতাংশ শিশু। জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা-ইউনিসেফের এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফ্রিকার ৪৯টি দেশের মধ্যে ৪৮টি দেশেরই শিশুরা উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিভিন্ন দেশকে তহবিল বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব পড়েছে সারা বিশ্বে। সবচেয়ে বেশি সংকটে রয়েছে আফ্রিকার শিশুরা। আফ্রিকা মহাদেশের ৪৯টি দেশের মধ্যে ৪৮টি দেশের শিশুরা রয়েছে অতি উচ্চ ঝুঁকিতে। যা শতকরার হিসেবে মহাদেশটির ৯৮ শতাংশ শিশু। জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা- ইউনিসেফের এক গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

শিশুদের ওপর ঘূর্ণিঝড় ও দাবদাহের মতো জলবায়ু ও আবহাওয়ার প্রভাব কতটা পড়েছে তার ভিত্তিতে আফ্রিকার দেশগুলোর অবস্থান তৈরী করা হয়েছে। দেখা গেছে, সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র, চাদ, নাইজেরিয়া, সোমালিয়া ও গিনির শিশুরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুদের এসব ঝুঁকির বিপরীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সমন্বয়ে গঠিত জলবায়ু তহবিলের মাত্র ২ দশমিক ৪ শতাংশ অর্থ শিশুদের পেছনে ব্যয় হচ্ছে, যা প্রতিবছর গড়ে মাত্র ৭ কোটি ১০ লাখ ডলার।

ইউনিসেফের পূর্ব ও দক্ষিণ আফ্রিকা অঞ্চলের উপপরিচালক লিকে ভ্যান ডি উইয়েল বলেন, শারীরিক দুর্বলতা ও বিভিন্ন জরুরি সামাজিক সেবা পাওয়ার সুযোগ কম থাকায় শিশুরা এই পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারছে না। শিশুরা যাতে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট প্রতিবন্ধকতাগুলো সামাল দিতে পারে সেজন্য তহবিল বাড়ানোর বিষয়ে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আফ্রিকার শিশুরা কিভাবে পরিবর্তিত জলবায়ুর সাথে খাপ খাওয়াবে সে বিষয়ে কাজ করছে ইউনিসেফ এবং ইউনাইটেড নেশনস এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে সবচেয়ে বেশি আফ্রিকার শিশুরা

আপডেট সময় : ০৯:৫৯:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে অতি উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে আফ্রিকা মহাদেশের ৯৮ শতাংশ শিশু। জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা-ইউনিসেফের এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফ্রিকার ৪৯টি দেশের মধ্যে ৪৮টি দেশেরই শিশুরা উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিভিন্ন দেশকে তহবিল বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব পড়েছে সারা বিশ্বে। সবচেয়ে বেশি সংকটে রয়েছে আফ্রিকার শিশুরা। আফ্রিকা মহাদেশের ৪৯টি দেশের মধ্যে ৪৮টি দেশের শিশুরা রয়েছে অতি উচ্চ ঝুঁকিতে। যা শতকরার হিসেবে মহাদেশটির ৯৮ শতাংশ শিশু। জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা- ইউনিসেফের এক গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

শিশুদের ওপর ঘূর্ণিঝড় ও দাবদাহের মতো জলবায়ু ও আবহাওয়ার প্রভাব কতটা পড়েছে তার ভিত্তিতে আফ্রিকার দেশগুলোর অবস্থান তৈরী করা হয়েছে। দেখা গেছে, সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র, চাদ, নাইজেরিয়া, সোমালিয়া ও গিনির শিশুরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুদের এসব ঝুঁকির বিপরীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সমন্বয়ে গঠিত জলবায়ু তহবিলের মাত্র ২ দশমিক ৪ শতাংশ অর্থ শিশুদের পেছনে ব্যয় হচ্ছে, যা প্রতিবছর গড়ে মাত্র ৭ কোটি ১০ লাখ ডলার।

ইউনিসেফের পূর্ব ও দক্ষিণ আফ্রিকা অঞ্চলের উপপরিচালক লিকে ভ্যান ডি উইয়েল বলেন, শারীরিক দুর্বলতা ও বিভিন্ন জরুরি সামাজিক সেবা পাওয়ার সুযোগ কম থাকায় শিশুরা এই পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারছে না। শিশুরা যাতে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট প্রতিবন্ধকতাগুলো সামাল দিতে পারে সেজন্য তহবিল বাড়ানোর বিষয়ে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আফ্রিকার শিশুরা কিভাবে পরিবর্তিত জলবায়ুর সাথে খাপ খাওয়াবে সে বিষয়ে কাজ করছে ইউনিসেফ এবং ইউনাইটেড নেশনস এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম।