ঢাকা ০৫:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

নির্বাচন নিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলতে রাজি ইমরান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৫১৩ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কারাবন্দী পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নির্বাচন প্রসঙ্গে সবার সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক। গতকাল শনিবার ইমরানের তিনজন আইনজীবী তাঁর সঙ্গে কারাগারে দেখা করার পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। পাকিস্তানের গণমাধ্যম ডন এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ইমরান খানের আইনজীবী ব্যারিস্টার গোহর খান এক্সে (সাবেক টুইটার) পোস্ট করা এক বার্তায় লেখেন, ‘অবশেষে অন্যান্য সহকর্মীদের সঙ্গে অ্যাটক কারাগারে ইমরান খানের সঙ্গে দেখা হয়েছে। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ, তিনি ভালো আছেন, তবে চলমান অনিশ্চয়তা, মুদ্রাস্ফীতি এবং সন্ত্রাস নিয়ে উদ্বিগ্ন। তিনি নির্বাচন নিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক।

ইমরানের আরেক আইনজীবী নাদিম হায়দার পাঞ্জুথা এক্স পোস্টে লিখেছেন, ‘ইমরান খান ক্ষমা চাওয়া এবং দেশ ছেড়ে চলে যেতে চাওয়ার গুঞ্জনকে ‌ভুয়া খবর বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আমি পাকিস্তানেই বাঁচব এবং মরব। এ ছাড়া তিনি ‘শুধু নির্বাচনের বিষয়ে’ সবার সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক বলেও জানিয়েছেন।

এদিকে, ইমরানের আরেক আইনজীবী ইন্তাজার হুসেন পাঞ্জুথা বলেছেন, ‘ইমরান খান আজ বলেছেন, তিনি নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়ে যেকোনো রাজনৈতিক দল ও প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলতে রাজি আছেন।’

গত বছরের এপ্রিলে অনাস্থা প্রস্তাবের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীত্ব হারান পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) প্রধান ইমরান খান। এর পর থেকে আগাম নির্বাচন ছিল পিটিআইয়ের প্রধান দাবি। সেই সময় তিনি ‘হাকীকী আজাদ’ নামে প্রচারণা শুরু করেন।

একই সঙ্গে ইমরান তৎকালীন পাকিস্তান গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতৃত্বাধীন সরকারকে নির্বাচন নিয়ে আলোচনার জন্য একাধিকবার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত এপ্রিল মাসে তার দল এবং সেই সময়ে ক্ষমতায় থাকা জোটের মধ্যে শুরু হওয়া আলোচনা ব্যর্থ হয়।

ইমরান খান বরাবরই তাঁর ক্ষমতাচ্যুতির জন্য বর্তমান সরকার ও সেনা নেতৃত্বকে দায়ী করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

নির্বাচন নিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলতে রাজি ইমরান

আপডেট সময় : ০৬:০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

কারাবন্দী পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নির্বাচন প্রসঙ্গে সবার সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক। গতকাল শনিবার ইমরানের তিনজন আইনজীবী তাঁর সঙ্গে কারাগারে দেখা করার পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। পাকিস্তানের গণমাধ্যম ডন এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ইমরান খানের আইনজীবী ব্যারিস্টার গোহর খান এক্সে (সাবেক টুইটার) পোস্ট করা এক বার্তায় লেখেন, ‘অবশেষে অন্যান্য সহকর্মীদের সঙ্গে অ্যাটক কারাগারে ইমরান খানের সঙ্গে দেখা হয়েছে। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ, তিনি ভালো আছেন, তবে চলমান অনিশ্চয়তা, মুদ্রাস্ফীতি এবং সন্ত্রাস নিয়ে উদ্বিগ্ন। তিনি নির্বাচন নিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক।

ইমরানের আরেক আইনজীবী নাদিম হায়দার পাঞ্জুথা এক্স পোস্টে লিখেছেন, ‘ইমরান খান ক্ষমা চাওয়া এবং দেশ ছেড়ে চলে যেতে চাওয়ার গুঞ্জনকে ‌ভুয়া খবর বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আমি পাকিস্তানেই বাঁচব এবং মরব। এ ছাড়া তিনি ‘শুধু নির্বাচনের বিষয়ে’ সবার সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক বলেও জানিয়েছেন।

এদিকে, ইমরানের আরেক আইনজীবী ইন্তাজার হুসেন পাঞ্জুথা বলেছেন, ‘ইমরান খান আজ বলেছেন, তিনি নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়ে যেকোনো রাজনৈতিক দল ও প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলতে রাজি আছেন।’

গত বছরের এপ্রিলে অনাস্থা প্রস্তাবের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীত্ব হারান পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) প্রধান ইমরান খান। এর পর থেকে আগাম নির্বাচন ছিল পিটিআইয়ের প্রধান দাবি। সেই সময় তিনি ‘হাকীকী আজাদ’ নামে প্রচারণা শুরু করেন।

একই সঙ্গে ইমরান তৎকালীন পাকিস্তান গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতৃত্বাধীন সরকারকে নির্বাচন নিয়ে আলোচনার জন্য একাধিকবার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত এপ্রিল মাসে তার দল এবং সেই সময়ে ক্ষমতায় থাকা জোটের মধ্যে শুরু হওয়া আলোচনা ব্যর্থ হয়।

ইমরান খান বরাবরই তাঁর ক্ষমতাচ্যুতির জন্য বর্তমান সরকার ও সেনা নেতৃত্বকে দায়ী করেছেন।