ঢাকা ১১:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আসুন জেনে নেই লবঙ্গ কেন খাবেন?

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৫:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৪৪ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হঠাৎ গলায় খুসখুস করলে বাড়ির বড়রা বলেন, মুখে লবঙ্গ রাখতে। লবঙ্গ সাধারণত মসলা হিসেবেই বেশি পরিচিত। মসলার পরিচয় ছাড়া লবঙ্গের আছে আরও অনেক ঔষধী গুণ। আসুন জেনে নেই, লবঙ্গের গুণের কথা-

১. সেই প্রাচীনকাল থেকে সর্দি, কাশিতে লবঙ্গ বেশ উপকারী। গরম পানিতে কিছুক্ষণ লবঙ্গ ফুটিয়ে সেই পানি পান করলে ভালো ফল পাবেন। আবার গার্গল করার পানিতে লবঙ্গ দিলেও ভালো উপকার পাবেন।

২. লবঙ্গ দাঁতের ব্যথা, মুখের দুর্গন্ধ, মাড়ির ক্ষয় দূর করে। তাই প্রায় টুথপেস্টের মূল উপাদান থাকে লবঙ্গ।

৩. লবঙ্গ পাচক রসের ক্ষরণ ঘটিয়ে হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। তাই হজম শক্তি ঠিক রাখার জন্য নিয়মিত লবঙ্গ খেতে পারেন। অনেকের ট্রেন বা বাসে যাওয়ার পথে বমি বমি ভাব হয়ে থাকে। যাত্রাপথে মুখে একটা লবঙ্গ রেখে দিলে বমি বমি ভাব হবে না।

৪. লবঙ্গ জীবাণুনাশক এবং বেদনানাশক হিসেবে কাজ করে। কানের ব্যথা দূর করতে ব্যবহার করতে পারেন লবঙ্গের তেল। কয়েক ফোঁটা লবঙ্গের তেল কানে দিলে ব্যথা কমার পাশাপাশি সংক্রমণও দূর হবে।

৫. নিয়মিত লবঙ্গ খেলে ডায়াবেটিস রোগ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এ ছাড়া লবঙ্গ শরীরের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

৬. লবঙ্গ চিবালে উচ্চ রক্তচাপ কমতে পারে। লবঙ্গ লিভারের কর্মক্ষমতাও বাড়ায়। লবঙ্গে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের কার্যক্ষমতাও বৃদ্ধি করে।

৭. লবঙ্গে আছে ম্যাংগানিজ। যা মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়ায়। এ ছাড়া লবঙ্গ হাড় মজবুতও করে।

৮. সাইনাসের সমস্যা, মাথা ব্যথা, পেট ফাঁপা, ব্রণের দাগ দূর করতে লবঙ্গ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আসুন জেনে নেই লবঙ্গ কেন খাবেন?

আপডেট সময় : ০৬:৩৫:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

হঠাৎ গলায় খুসখুস করলে বাড়ির বড়রা বলেন, মুখে লবঙ্গ রাখতে। লবঙ্গ সাধারণত মসলা হিসেবেই বেশি পরিচিত। মসলার পরিচয় ছাড়া লবঙ্গের আছে আরও অনেক ঔষধী গুণ। আসুন জেনে নেই, লবঙ্গের গুণের কথা-

১. সেই প্রাচীনকাল থেকে সর্দি, কাশিতে লবঙ্গ বেশ উপকারী। গরম পানিতে কিছুক্ষণ লবঙ্গ ফুটিয়ে সেই পানি পান করলে ভালো ফল পাবেন। আবার গার্গল করার পানিতে লবঙ্গ দিলেও ভালো উপকার পাবেন।

২. লবঙ্গ দাঁতের ব্যথা, মুখের দুর্গন্ধ, মাড়ির ক্ষয় দূর করে। তাই প্রায় টুথপেস্টের মূল উপাদান থাকে লবঙ্গ।

৩. লবঙ্গ পাচক রসের ক্ষরণ ঘটিয়ে হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। তাই হজম শক্তি ঠিক রাখার জন্য নিয়মিত লবঙ্গ খেতে পারেন। অনেকের ট্রেন বা বাসে যাওয়ার পথে বমি বমি ভাব হয়ে থাকে। যাত্রাপথে মুখে একটা লবঙ্গ রেখে দিলে বমি বমি ভাব হবে না।

৪. লবঙ্গ জীবাণুনাশক এবং বেদনানাশক হিসেবে কাজ করে। কানের ব্যথা দূর করতে ব্যবহার করতে পারেন লবঙ্গের তেল। কয়েক ফোঁটা লবঙ্গের তেল কানে দিলে ব্যথা কমার পাশাপাশি সংক্রমণও দূর হবে।

৫. নিয়মিত লবঙ্গ খেলে ডায়াবেটিস রোগ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এ ছাড়া লবঙ্গ শরীরের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

৬. লবঙ্গ চিবালে উচ্চ রক্তচাপ কমতে পারে। লবঙ্গ লিভারের কর্মক্ষমতাও বাড়ায়। লবঙ্গে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের কার্যক্ষমতাও বৃদ্ধি করে।

৭. লবঙ্গে আছে ম্যাংগানিজ। যা মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়ায়। এ ছাড়া লবঙ্গ হাড় মজবুতও করে।

৮. সাইনাসের সমস্যা, মাথা ব্যথা, পেট ফাঁপা, ব্রণের দাগ দূর করতে লবঙ্গ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।