ঢাকা ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সাইবার নিরাপত্তা বিল সংসদে উত্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৩:৫৬:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৬৪ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হয়েছে সাইবার নিরাপত্তা বিল। তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বিলটি সংসদে উপস্থাপন করেন। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

বিলটি উত্থাপনের আপত্তি করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমাম। কিন্তু সংসদ সদস্যদের কণ্ঠভোটে তা নাকচ হয়ে যায়।

পরে বিলটি অধিকতর পরীক্ষা করার জন্য ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয় এই বিল। এরপর স্থায়ী কমিটি, ৫ দিনের মধ্যে এ নিয়ে প্রতিবেদন দেবে সংসদে।

এর আগে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাইবার নিরাপত্তা বিলের উত্থাপনের বিষয়ে বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কারণে জনগণ ও গণমাধ্যমের স্বাধীনভাবে সংবাদ পরিবেশনে যে মানসিক চাপ বা আতঙ্ক তৈরি হয়েছে তা সাইবার নিরাপত্তা আইনে দূর হবে।’

সংসদ কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী বিলটির অধিকতর যাচাই-বাছাইয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হবে। এরপর স্থায়ী কমিটি সংসদে প্রতিবেদন দেবে।

গত ৭ আগস্ট ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনকে আধুনিকায়ন করে সাইবার নিরাপত্তা আইন করার সিদ্ধান্ত নেয়। যেখানে বিদ্যমান আইনের কিছু ধারা সংশোধন করার কথা বলা হচ্ছে। গত ২৮ আগস্ট মন্ত্রিসভা আইনটির চূড়ান্ত খসড়া অনুমোদন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

সাইবার নিরাপত্তা বিল সংসদে উত্থাপন

আপডেট সময় : ০৩:৫৬:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হয়েছে সাইবার নিরাপত্তা বিল। তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বিলটি সংসদে উপস্থাপন করেন। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

বিলটি উত্থাপনের আপত্তি করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমাম। কিন্তু সংসদ সদস্যদের কণ্ঠভোটে তা নাকচ হয়ে যায়।

পরে বিলটি অধিকতর পরীক্ষা করার জন্য ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয় এই বিল। এরপর স্থায়ী কমিটি, ৫ দিনের মধ্যে এ নিয়ে প্রতিবেদন দেবে সংসদে।

এর আগে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাইবার নিরাপত্তা বিলের উত্থাপনের বিষয়ে বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কারণে জনগণ ও গণমাধ্যমের স্বাধীনভাবে সংবাদ পরিবেশনে যে মানসিক চাপ বা আতঙ্ক তৈরি হয়েছে তা সাইবার নিরাপত্তা আইনে দূর হবে।’

সংসদ কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী বিলটির অধিকতর যাচাই-বাছাইয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হবে। এরপর স্থায়ী কমিটি সংসদে প্রতিবেদন দেবে।

গত ৭ আগস্ট ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনকে আধুনিকায়ন করে সাইবার নিরাপত্তা আইন করার সিদ্ধান্ত নেয়। যেখানে বিদ্যমান আইনের কিছু ধারা সংশোধন করার কথা বলা হচ্ছে। গত ২৮ আগস্ট মন্ত্রিসভা আইনটির চূড়ান্ত খসড়া অনুমোদন করে।