ঢাকা ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গ্রিন কার্ড পাওয়ার আগেই মারাা যাবে ৪ লাখের বেশি ভারতীয়!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:২১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৬৮ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আমেরিকার গ্রিন কার্ড পাওয়ার জন্য অপেক্ষায় প্রায় ১১ লাখ ভারতীয়। তবে এসব আবেদন বর্তমানে ব্যাকলগ বা স্থগিত অবস্থায় রয়েছে। ফলে পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে, একজন প্রবাসী ভারতীয়কে গ্রিন কার্ড অর্থাৎ সে দেশে স্থায়ীভাবে থাকার অধিকার পেতে আবেদন করলে ১৩৪ বছর অপেক্ষা করতে হবে। সেক্ষেত্রে গ্রিন কার্ড হাতে পাওয়ার আগে মারা যেতে পারে চার লাখের বেশি ভারতীয়।

নতুন এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে বলে জানায় এনডিটিভি। গ্রিন কার্ড বা স্থায়ী বাসিন্দার কার্ড হলো, এমন একটি নথি যা আমেরিকার অভিবাসীদের স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেয়। ওয়াশিংটন ভিত্তিক থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ক্যাটো ইনস্টিটিউট জানায়, স্থগিত থাকা ১৮ লাখ কর্মসংস্থান ভিত্তিক গ্রিন কার্ড আবেদনের ৬৩ শতাংশ ভারতীয়দের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এত সংখ্যক আবেদন সম্পূর্ণ কার্যকর হতে ১৩৪ বছরেরও বেশি অপেক্ষা করতে হতে পারে। ফলে ৪ লাখ ২৪ হাজার আবেদনকারী অপেক্ষায় থাকা অবস্থায় মারা যাবে। তাদের মধ্যে ৯০ শতাংশেরও বেশি ভারতীয়।

অবশ্য গ্রিনকার্ড পেতে এমন দেরির কারণও রয়েছে। গ্রিন কার্ডের জন্য বরাদ্দ কোটা একমাত্র আমেরিকার কংগ্রেসের পরিবর্তনের অধিকার আছে। কংগ্রেস থেকে পারিবারিক স্পনসরকৃত অগ্রাধিকার গ্রিন কার্ডের বার্ষিক সীমা ২ লাখ ২৬ হাজার। আর কর্মসংস্থান ভিত্তিক বার্ষিক সীমা ১ লাখ ৪০ হাজার। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সৃষ্টি হয়েছে এমন ব্যাকলগ পরিস্থিতির। ফলে এক প্রকার অনিশ্চয়তার মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে বহু প্রবাসী ভারতীয়কে।

নিউজটি শেয়ার করুন

গ্রিন কার্ড পাওয়ার আগেই মারাা যাবে ৪ লাখের বেশি ভারতীয়!

আপডেট সময় : ০৬:২১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আমেরিকার গ্রিন কার্ড পাওয়ার জন্য অপেক্ষায় প্রায় ১১ লাখ ভারতীয়। তবে এসব আবেদন বর্তমানে ব্যাকলগ বা স্থগিত অবস্থায় রয়েছে। ফলে পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে, একজন প্রবাসী ভারতীয়কে গ্রিন কার্ড অর্থাৎ সে দেশে স্থায়ীভাবে থাকার অধিকার পেতে আবেদন করলে ১৩৪ বছর অপেক্ষা করতে হবে। সেক্ষেত্রে গ্রিন কার্ড হাতে পাওয়ার আগে মারা যেতে পারে চার লাখের বেশি ভারতীয়।

নতুন এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে বলে জানায় এনডিটিভি। গ্রিন কার্ড বা স্থায়ী বাসিন্দার কার্ড হলো, এমন একটি নথি যা আমেরিকার অভিবাসীদের স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেয়। ওয়াশিংটন ভিত্তিক থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ক্যাটো ইনস্টিটিউট জানায়, স্থগিত থাকা ১৮ লাখ কর্মসংস্থান ভিত্তিক গ্রিন কার্ড আবেদনের ৬৩ শতাংশ ভারতীয়দের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এত সংখ্যক আবেদন সম্পূর্ণ কার্যকর হতে ১৩৪ বছরেরও বেশি অপেক্ষা করতে হতে পারে। ফলে ৪ লাখ ২৪ হাজার আবেদনকারী অপেক্ষায় থাকা অবস্থায় মারা যাবে। তাদের মধ্যে ৯০ শতাংশেরও বেশি ভারতীয়।

অবশ্য গ্রিনকার্ড পেতে এমন দেরির কারণও রয়েছে। গ্রিন কার্ডের জন্য বরাদ্দ কোটা একমাত্র আমেরিকার কংগ্রেসের পরিবর্তনের অধিকার আছে। কংগ্রেস থেকে পারিবারিক স্পনসরকৃত অগ্রাধিকার গ্রিন কার্ডের বার্ষিক সীমা ২ লাখ ২৬ হাজার। আর কর্মসংস্থান ভিত্তিক বার্ষিক সীমা ১ লাখ ৪০ হাজার। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সৃষ্টি হয়েছে এমন ব্যাকলগ পরিস্থিতির। ফলে এক প্রকার অনিশ্চয়তার মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে বহু প্রবাসী ভারতীয়কে।