ঢাকা ১১:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জি-২০ সম্মেলনের নৈশভোজে আমন্ত্রণ পেলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৮:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৩৭৪ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভারতের নয়াদিল্লিতে আগামীকাল শনিবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে জি-২০ সম্মেলন। আর এ সম্মেলনের নৈশভোজে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে আমন্ত্রণ পেয়েছেন ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও এইচডি দেব গৌড়া।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, এবারের ১৮তম জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের অয়োজক দেশ ভারত। সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রাজধানীর ভারত মন্ডপে। বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এ আন্তর্জাতিক সম্মেলন উপলক্ষে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা গ্রহণ করেছে ভারত সরকার।

আগামীকালের নৈশভোজে বিরোধীশাসিত রাজ্যগুলোসহ সকল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। নৈশভোজের আয়োজন করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি দৌপদী মুর্মু। এতে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার, তামিলনাড়ুর এম কে স্টালিন, পশ্চিমবঙ্গের মমতা ব্যানার্জি, ঝাড়খণ্ডের হেমন্ত সোরেন, পাঞ্জাবের ভগবন্ত মান এবং দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়াল আমন্ত্রিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

তবে ভারতের বিরোদী দল কংগ্রেস জানিয়েছে, তাদের দলের প্রেসিডেন্ট মল্লিকার্জুন খার্গেকে জি-২০ সম্মেলনের নৈশ্যভোজে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

এরই মধ্যে রাষ্ট্রপদি দৌপদী মুর্মু বিদেশি নেতাদের আমন্ত্রণপত্রে ইন্ডিয়ার পরিবর্তে ‘ভারত’ ব্যাপক বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। প্রথমবারের মতো এই আমন্ত্রণপত্রে ‘প্রেসিডেন্ট অব ইন্ডিয়া’ না লিখে ‘প্রেসিডেন্ট অব ভারত’ লেখা হয়েছে।

ভারতে অনুষ্ঠিত এবারের জি-২০ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক, সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। তবে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এই সম্মেলনে অংশ নেবেন না বলে নিশ্চিত করেছেন।

মনমোহন সিং ভারতের চতুর্দশ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। তিনি ২০০৪ সালের সাধারণ নির্বাচনের পর ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ এলায়েন্স জোটের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনীত হন। এরপর ওই বছরের ২২ মে তিনি মন্ত্রিসভার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

জি-২০ সম্মেলনের নৈশভোজে আমন্ত্রণ পেলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

আপডেট সময় : ০৬:৩৮:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ভারতের নয়াদিল্লিতে আগামীকাল শনিবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে জি-২০ সম্মেলন। আর এ সম্মেলনের নৈশভোজে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে আমন্ত্রণ পেয়েছেন ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও এইচডি দেব গৌড়া।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, এবারের ১৮তম জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের অয়োজক দেশ ভারত। সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রাজধানীর ভারত মন্ডপে। বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এ আন্তর্জাতিক সম্মেলন উপলক্ষে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা গ্রহণ করেছে ভারত সরকার।

আগামীকালের নৈশভোজে বিরোধীশাসিত রাজ্যগুলোসহ সকল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। নৈশভোজের আয়োজন করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি দৌপদী মুর্মু। এতে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার, তামিলনাড়ুর এম কে স্টালিন, পশ্চিমবঙ্গের মমতা ব্যানার্জি, ঝাড়খণ্ডের হেমন্ত সোরেন, পাঞ্জাবের ভগবন্ত মান এবং দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়াল আমন্ত্রিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

তবে ভারতের বিরোদী দল কংগ্রেস জানিয়েছে, তাদের দলের প্রেসিডেন্ট মল্লিকার্জুন খার্গেকে জি-২০ সম্মেলনের নৈশ্যভোজে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

এরই মধ্যে রাষ্ট্রপদি দৌপদী মুর্মু বিদেশি নেতাদের আমন্ত্রণপত্রে ইন্ডিয়ার পরিবর্তে ‘ভারত’ ব্যাপক বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। প্রথমবারের মতো এই আমন্ত্রণপত্রে ‘প্রেসিডেন্ট অব ইন্ডিয়া’ না লিখে ‘প্রেসিডেন্ট অব ভারত’ লেখা হয়েছে।

ভারতে অনুষ্ঠিত এবারের জি-২০ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক, সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। তবে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এই সম্মেলনে অংশ নেবেন না বলে নিশ্চিত করেছেন।

মনমোহন সিং ভারতের চতুর্দশ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। তিনি ২০০৪ সালের সাধারণ নির্বাচনের পর ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ এলায়েন্স জোটের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনীত হন। এরপর ওই বছরের ২২ মে তিনি মন্ত্রিসভার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।