১০:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বর্ণিল নৌকাবাইচ

উৎসাহ উদ্দীপনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস নদীতে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে, জেলা প্রশাসন আয়োজিত নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা দেখতে ভিড় করে হাজারও দর্শক। প্রতিবছর নৌকাবাইচ চালু রাখার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে নৌকা বাইচের আয়োজন চালু রাখার কথা জানালেন আয়োজকরা।

শহরের যান্ত্রিক কোলাহল আর অপসংস্কৃতির আড়ালে দিন দিন হারাতে বসেছে বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব আর দেশীয় সংস্কৃতি। তবুও যেটুকু টিকে আছে, তাতেই খুশি সহজ সরল এই মানুষগুলো। তিতাসের বুকে বৃহস্পতিবার পড়ন্ত বিকেলে এ নৌকা বাইচ দেখতে ভিড় করে হাজারও মানুষ। যা মিলনমেলায় পরিণত হয়। চমৎকার এ বাইচ দেখে খুশি আগত দর্শকরা।

বাংলার ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে প্রতিবছর নৌকাবাইচ চালু রাখার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে নৌকা বাইচের আয়োজন চালু রাখার কথা জানিয়েছেন আয়োজকরা।

নৌকাবাইচে ১৫টি প্রতিযোগী দল অংশ নেয়। বাইচ শেষে আমন্ত্রিত অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বর্ণিল নৌকাবাইচ

আপডেট : ০৬:১৫:৪৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

উৎসাহ উদ্দীপনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস নদীতে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে, জেলা প্রশাসন আয়োজিত নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা দেখতে ভিড় করে হাজারও দর্শক। প্রতিবছর নৌকাবাইচ চালু রাখার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে নৌকা বাইচের আয়োজন চালু রাখার কথা জানালেন আয়োজকরা।

শহরের যান্ত্রিক কোলাহল আর অপসংস্কৃতির আড়ালে দিন দিন হারাতে বসেছে বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব আর দেশীয় সংস্কৃতি। তবুও যেটুকু টিকে আছে, তাতেই খুশি সহজ সরল এই মানুষগুলো। তিতাসের বুকে বৃহস্পতিবার পড়ন্ত বিকেলে এ নৌকা বাইচ দেখতে ভিড় করে হাজারও মানুষ। যা মিলনমেলায় পরিণত হয়। চমৎকার এ বাইচ দেখে খুশি আগত দর্শকরা।

বাংলার ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে প্রতিবছর নৌকাবাইচ চালু রাখার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে নৌকা বাইচের আয়োজন চালু রাখার কথা জানিয়েছেন আয়োজকরা।

নৌকাবাইচে ১৫টি প্রতিযোগী দল অংশ নেয়। বাইচ শেষে আমন্ত্রিত অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।