ঢাকা ০৪:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৬৩২, আরও বাড়ার শঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:৪৫:৫৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৬১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত মরক্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল। নিহতের সংখ্যা বাড়তে বাড়তে ৬০০ ছাড়িয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন মরক্কো টিভি জানিয়েছে, নিহতের সংখ্যা ৬৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৩২৯ জন।

মরক্কো টিভির বরাত দিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, অসংখ্য ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে। অনেকেই বাড়ি ছেড়ে রাস্তায় এসে দাঁড়িয়েছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, উদ্ধার কাজ চলছে। এখনো অনেকেই ধ্বংসস্তুপের নিচে আটকা পড়ে আছেন বলে ধারনা করা হচ্ছে।

স্থানীয় এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, বেশিরভাগ মানুষ মারা গেছেন পাহাড়ী এলাকায়। সেখানে উদ্ধারকারীরা সময়মতো পৌঁছাতে পারেনি।

ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল মারাকাশ শহরের কাছেই। ফলে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মারাকাশ শহর। এ শহরের স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী ভবনগুলো ধসে পড়েছে। স্থানীয় টেলিভিশন একটি ধসে পড়া মসজিদের ভিডিও প্রচার করেছে। সেখানে ধ্বংসস্তুপের নিচে একটি গাড়ি আটকে আটকে থাকতে দেখা গেছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ভূমিকম্পটি আল হাউজ, ওয়ারজাজেট, মারাকাশ, আজিলাল, চিচাউয়া ও তারউদান্ত প্রদেশে আঘাত করেছে।

মরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহত হাজার ছাড়াতে পারেমরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহত হাজার ছাড়াতে পারে
মরক্কোর জিওফিজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, ইঘিল এলাকায় ৭ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। তবে আমেরিকার ভূতাত্ত্বিক জরিপ ভূমিকম্পের মাত্রা ৬ দশমিক ৮ বলে জানিয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, ইঘিল একটি ছোট কৃষি প্রধান পাহাড়ী গ্রাম। এটি মারাকাশ থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থিত। গতকাল শুক্রবার রাত ১১টা পর ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক এক বিবৃতিতে বলেছেন, জাতিসংঘ মরক্কোর সরকারকে সব ধরনের সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে মরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ১ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে অনুমান করছে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস। সংস্থাটি তাদের ওয়েবসাইটে হতাহত বিষয়ক মূল্যায়নকে ‘সম্ভাব্য’ থেকে ‘উল্লেখযোগ্য হতাহতের সম্ভাবনায়’ উন্নীত করেছে।

আফ্রিকার দেশ মরক্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে গতকাল শুক্রবার রাতে শক্তিশালী ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। ইউএসজিএস জানায়, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল মরক্কোর মারাকেশ শহর থেকে ৭১ কিলোমিটার দূরে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের গভীরতা ছিল ১৮ দশমিক ৫ কিলোমিটার। স্থানীয় সময় ১১টার দিকে এ ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৬৩২, আরও বাড়ার শঙ্কা

আপডেট সময় : ০৯:৪৫:৫৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত মরক্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল। নিহতের সংখ্যা বাড়তে বাড়তে ৬০০ ছাড়িয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন মরক্কো টিভি জানিয়েছে, নিহতের সংখ্যা ৬৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৩২৯ জন।

মরক্কো টিভির বরাত দিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, অসংখ্য ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে। অনেকেই বাড়ি ছেড়ে রাস্তায় এসে দাঁড়িয়েছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, উদ্ধার কাজ চলছে। এখনো অনেকেই ধ্বংসস্তুপের নিচে আটকা পড়ে আছেন বলে ধারনা করা হচ্ছে।

স্থানীয় এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, বেশিরভাগ মানুষ মারা গেছেন পাহাড়ী এলাকায়। সেখানে উদ্ধারকারীরা সময়মতো পৌঁছাতে পারেনি।

ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল মারাকাশ শহরের কাছেই। ফলে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মারাকাশ শহর। এ শহরের স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী ভবনগুলো ধসে পড়েছে। স্থানীয় টেলিভিশন একটি ধসে পড়া মসজিদের ভিডিও প্রচার করেছে। সেখানে ধ্বংসস্তুপের নিচে একটি গাড়ি আটকে আটকে থাকতে দেখা গেছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ভূমিকম্পটি আল হাউজ, ওয়ারজাজেট, মারাকাশ, আজিলাল, চিচাউয়া ও তারউদান্ত প্রদেশে আঘাত করেছে।

মরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহত হাজার ছাড়াতে পারেমরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহত হাজার ছাড়াতে পারে
মরক্কোর জিওফিজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, ইঘিল এলাকায় ৭ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। তবে আমেরিকার ভূতাত্ত্বিক জরিপ ভূমিকম্পের মাত্রা ৬ দশমিক ৮ বলে জানিয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, ইঘিল একটি ছোট কৃষি প্রধান পাহাড়ী গ্রাম। এটি মারাকাশ থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থিত। গতকাল শুক্রবার রাত ১১টা পর ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক এক বিবৃতিতে বলেছেন, জাতিসংঘ মরক্কোর সরকারকে সব ধরনের সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে মরক্কোয় ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ১ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে অনুমান করছে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস। সংস্থাটি তাদের ওয়েবসাইটে হতাহত বিষয়ক মূল্যায়নকে ‘সম্ভাব্য’ থেকে ‘উল্লেখযোগ্য হতাহতের সম্ভাবনায়’ উন্নীত করেছে।

আফ্রিকার দেশ মরক্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে গতকাল শুক্রবার রাতে শক্তিশালী ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। ইউএসজিএস জানায়, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল মরক্কোর মারাকেশ শহর থেকে ৭১ কিলোমিটার দূরে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের গভীরতা ছিল ১৮ দশমিক ৫ কিলোমিটার। স্থানীয় সময় ১১টার দিকে এ ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।