ঢাকা ১২:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন অভূতপূর্ব : ম্যাক্রো

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৬:২৮:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৫১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক উন্নয়ন হয়েছে। সেই সঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় দেশটির ভূমিকা প্রশংসনীয়। এমন মন্তব্য করেছেন ঢাকায় সফররত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন ম্যাক্রো। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রান্সকে বাংলাদেশের বিশ্বস্ত উন্নয়ন সহযোগী বলে উল্লেখ করেন। এরপর প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে রোববার (১০ আগস্ট) রাতে নৈশভোজে অংশ নেন ম্যাক্রো।

ইলিশ মাছ, কাচ্চি বিরিয়ানি, আমড়ার জুস, রসগোল্লা ও পিঠাসহ নানা আয়োজনে ঢাকায় সফররত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে আপ্যায়ন করা হয়েছে।

এই আয়োজনে অ্যাপিটাইজার হিসেবে ছিল পেঁয়াজো, সমুচার সঙ্গে স্মোকড ইলিশ, স্যুপ, ব্রেড অ্যান্ড বাটার।

মেইন কোর্সে ছিল খাসির মাংসের কাচ্চি বিরিয়ানি, গরুর মাংসের শিক কাবাব, চিকেন কোরমা, রোস্টেড লবস্টার, টক অবার্গিন, ট্র্যাডিশনাল লুচি ব্রেড।

ডেজার্ট হিসেবে ছিল পাটিসাপটা পিঠা, মিষ্টি দই, রসগোল্লা ও বিভিন্ন ধরনের ফল। বেভারেজ হিসেবে ছিল তাজা ফলের জুস, আমড়ার জুস, চা, কফি ও কোমল পানীয়।

রাত ৮টার দিকে দুই দিনের সফরে ঢাকায় পৌঁছেন ইমানুয়েল ম্যাক্রো। এ সময় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভারতে জি-২০ সম্মেলন শেষে দুই দিনের সফরে ঢাকায় আসলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। গত ৩৩ বছরের মধ্যে এটি প্রথম কোনো ফরাসি প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফর। ম্যাক্রোর এই ঢাকা সফরে ফ্রান্স ও বাংলাদেশের মধ্যে দুটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন অভূতপূর্ব : ম্যাক্রো

আপডেট সময় : ০৬:২৮:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক উন্নয়ন হয়েছে। সেই সঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় দেশটির ভূমিকা প্রশংসনীয়। এমন মন্তব্য করেছেন ঢাকায় সফররত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন ম্যাক্রো। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রান্সকে বাংলাদেশের বিশ্বস্ত উন্নয়ন সহযোগী বলে উল্লেখ করেন। এরপর প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে রোববার (১০ আগস্ট) রাতে নৈশভোজে অংশ নেন ম্যাক্রো।

ইলিশ মাছ, কাচ্চি বিরিয়ানি, আমড়ার জুস, রসগোল্লা ও পিঠাসহ নানা আয়োজনে ঢাকায় সফররত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে আপ্যায়ন করা হয়েছে।

এই আয়োজনে অ্যাপিটাইজার হিসেবে ছিল পেঁয়াজো, সমুচার সঙ্গে স্মোকড ইলিশ, স্যুপ, ব্রেড অ্যান্ড বাটার।

মেইন কোর্সে ছিল খাসির মাংসের কাচ্চি বিরিয়ানি, গরুর মাংসের শিক কাবাব, চিকেন কোরমা, রোস্টেড লবস্টার, টক অবার্গিন, ট্র্যাডিশনাল লুচি ব্রেড।

ডেজার্ট হিসেবে ছিল পাটিসাপটা পিঠা, মিষ্টি দই, রসগোল্লা ও বিভিন্ন ধরনের ফল। বেভারেজ হিসেবে ছিল তাজা ফলের জুস, আমড়ার জুস, চা, কফি ও কোমল পানীয়।

রাত ৮টার দিকে দুই দিনের সফরে ঢাকায় পৌঁছেন ইমানুয়েল ম্যাক্রো। এ সময় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভারতে জি-২০ সম্মেলন শেষে দুই দিনের সফরে ঢাকায় আসলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। গত ৩৩ বছরের মধ্যে এটি প্রথম কোনো ফরাসি প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফর। ম্যাক্রোর এই ঢাকা সফরে ফ্রান্স ও বাংলাদেশের মধ্যে দুটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।