১০:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডেঙ্গুতে ১১ জনের মৃত্যু, ভর্তি ২৯৪৪ জন

দেশে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ৭ জন ঢাকার এবং ৪ জন ঢাকার বাইরের। এ নিয়ে এ বছর ডেঙ্গুতে মোট প্রাণহানি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৪১ জনে। সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২ হাজার ৯৪৪ জন নতুন রোগী। একদিনে রাজধানীর হাসপাতালে ৯৬৭ জন এবং ঢাকার বাইরে ১ হাজার ৯৭৭ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে চলতি বছর মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়ালো ১ লাখ ৫১ হাজার ২৭২ জনে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে মোট ভর্তি রয়েছেন ৯ হাজার ৮১৬ রোগী। এদিকে, একদিনে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৮৮ জন। আর এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন মোট এক লাখ ৪০ হাজার ৭১৫ জন।

চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৪৮ হাজার ৩২৮ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় ৬৭ হাজার ৫৯ জন এবং ঢাকার বাইরে চিকিৎসা নিয়েছেন ৮১ হাজার ২৬৯ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭২৭। ঢাকায় ৬২ হাজার ২৪১ এবং ঢাকার বাইরে ৭৫ হাজার ৪৮৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

গত বছর দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ২৮১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। চলতি বছর অনেক আগেই সেই রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। গত মাসেই ডেঙ্গুতে ২০৪ জনের মৃত্যু হয়। এর আগে ২০১৯ সালে মৃত্যু হয় ১৭৯ জনের। এ ছাড়া ২০২০ সালে ৭ জন ও ২০২১ সালে মারা যান ১০৫ জন।

ডেঙ্গু রোগীদের চাপে হিমশিম অবস্থা কিছুটা কেটেছে রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে। তবে ডেঙ্গু পরিস্থিতির তেমন উন্নতি হয়নি। নগরবাসীর অভিযোগ, মশক নিধনে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেই সিটি করপোরেশনের।

আশঙ্কা করা হচ্ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ চলতে পারে নভেম্বর পর্যন্ত। পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হওয়ার আগেই মৃত্যুর পর্যালোচনা রিপোর্ট পাওয়া যাবে বলে আশাবাদী স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

ডেঙ্গুতে ১১ জনের মৃত্যু, ভর্তি ২৯৪৪ জন

আপডেট : ০৫:০৮:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

দেশে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ৭ জন ঢাকার এবং ৪ জন ঢাকার বাইরের। এ নিয়ে এ বছর ডেঙ্গুতে মোট প্রাণহানি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৪১ জনে। সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২ হাজার ৯৪৪ জন নতুন রোগী। একদিনে রাজধানীর হাসপাতালে ৯৬৭ জন এবং ঢাকার বাইরে ১ হাজার ৯৭৭ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে চলতি বছর মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়ালো ১ লাখ ৫১ হাজার ২৭২ জনে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে মোট ভর্তি রয়েছেন ৯ হাজার ৮১৬ রোগী। এদিকে, একদিনে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৮৮ জন। আর এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন মোট এক লাখ ৪০ হাজার ৭১৫ জন।

চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৪৮ হাজার ৩২৮ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় ৬৭ হাজার ৫৯ জন এবং ঢাকার বাইরে চিকিৎসা নিয়েছেন ৮১ হাজার ২৬৯ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭২৭। ঢাকায় ৬২ হাজার ২৪১ এবং ঢাকার বাইরে ৭৫ হাজার ৪৮৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

গত বছর দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ২৮১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। চলতি বছর অনেক আগেই সেই রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। গত মাসেই ডেঙ্গুতে ২০৪ জনের মৃত্যু হয়। এর আগে ২০১৯ সালে মৃত্যু হয় ১৭৯ জনের। এ ছাড়া ২০২০ সালে ৭ জন ও ২০২১ সালে মারা যান ১০৫ জন।

ডেঙ্গু রোগীদের চাপে হিমশিম অবস্থা কিছুটা কেটেছে রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে। তবে ডেঙ্গু পরিস্থিতির তেমন উন্নতি হয়নি। নগরবাসীর অভিযোগ, মশক নিধনে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেই সিটি করপোরেশনের।

আশঙ্কা করা হচ্ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ চলতে পারে নভেম্বর পর্যন্ত। পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হওয়ার আগেই মৃত্যুর পর্যালোচনা রিপোর্ট পাওয়া যাবে বলে আশাবাদী স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।