ঢাকা ১১:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সর্দিজ্বরে হলে যা করবেন

স্বাস্থ্য ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৬:৪০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৫০১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সেদিন সন্ধ্যায় রুমানা অফিস থেকে বাসায় ফিরলেন। বাসায় ঘন্টাখানিক কাজ করার পর দেখলেন সামন্য শীত শীত লাগছে। আর নাক দিয়ে পানি ঝরছে। রুমানার মতো সর্দিজ্বরের দেখা অনেকেই পান। সর্দিজ্বর মানুষকে যে কোনো সময় কাবু করে ফেলতে পারেন।

সাধারণত সর্দিজ্বরের বেশকিছু উপসর্গ থাকে। যেমন: গলা ব্যথা, গলায় খুসখুস করে, নাক বন্ধ, নাক দিয়ে পানি ঝরা এবং হাঁচি। এ ছাড়া মাথাব্যথা, মাংসপেশিতে ব্যথা, শরীর ব্যথাও দেখা দেয়। এই সর্দিজ্বর হওয়ার কারণ ভাইরাস সংক্রমণ। আসুন জেনে নেই সর্দিজ্বর থেকে সুস্থ হওয়ার কিছু উপায়-

১. খুব সামান্য কারণেই সর্দিজ্বরে আক্রান্ত হতে পারে যে কেউ। এই সময় পর্যাপ্ত ঘুম বা বিশ্রামের প্রয়োজন। সর্দিজ্বরে বিশ্রাম নিলে আপনি আরাম পাবেন।

২. এই সময় উষ্ণ পরিবেশে থাকার চেষ্টা করুন। সর্দিজ্বরের সময় উষ্ণ পরিবেশ এবং উষ্ণ পোশাক পরিধান করলে দেখবেন ভালো লাগবে।

৩. পানির অপর নাম জীবন। এই কথা আমরা সকলেই জানি। সর্দিজ্বরে সুস্থ থাকতে প্রচুর পানি পান করুন। পানির পাশাপাশি ফলের রস ও পান করতে পারেন। এতে আপনার শরীরের পানিশূন্যতা কমবে।

৪. সর্দিজ্বরে গলা ব্যথা একটা সাধারণ বিষয়। তাই হালকা গরম পানিতে লবণ দিয়ে গার্গল করতে পারেন। অথবা হালকা গরম পানিতে লেবু এবং মধু দিয়ে পান করতে পারেন।

৫. সর্দিজ্বর থেকে বাঁচার ক্ষেত্রে ভিটামিন সি যুক্ত খাবার বেশি খান। মৌসুমি ফল, শাকসবজিতে প্রচুর ভিটামিন সি পাবেন।

৬. সর্দিজ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তি হাঁচি-কাশির সময় নাক-মুখ টিস্যু দিয়ে ঢেকে রাখুন। এরপর সেটি ফেলে দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলুন।

৭. সাধারণত কয়েকদিনের মধ্যেই মানুষের সর্দিজ্বর ভালও হয়ে যায়। সাতদিনের বেশি সর্দিজ্বর থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

নিউজটি শেয়ার করুন

সর্দিজ্বরে হলে যা করবেন

আপডেট সময় : ০৬:৪৬:৪০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সেদিন সন্ধ্যায় রুমানা অফিস থেকে বাসায় ফিরলেন। বাসায় ঘন্টাখানিক কাজ করার পর দেখলেন সামন্য শীত শীত লাগছে। আর নাক দিয়ে পানি ঝরছে। রুমানার মতো সর্দিজ্বরের দেখা অনেকেই পান। সর্দিজ্বর মানুষকে যে কোনো সময় কাবু করে ফেলতে পারেন।

সাধারণত সর্দিজ্বরের বেশকিছু উপসর্গ থাকে। যেমন: গলা ব্যথা, গলায় খুসখুস করে, নাক বন্ধ, নাক দিয়ে পানি ঝরা এবং হাঁচি। এ ছাড়া মাথাব্যথা, মাংসপেশিতে ব্যথা, শরীর ব্যথাও দেখা দেয়। এই সর্দিজ্বর হওয়ার কারণ ভাইরাস সংক্রমণ। আসুন জেনে নেই সর্দিজ্বর থেকে সুস্থ হওয়ার কিছু উপায়-

১. খুব সামান্য কারণেই সর্দিজ্বরে আক্রান্ত হতে পারে যে কেউ। এই সময় পর্যাপ্ত ঘুম বা বিশ্রামের প্রয়োজন। সর্দিজ্বরে বিশ্রাম নিলে আপনি আরাম পাবেন।

২. এই সময় উষ্ণ পরিবেশে থাকার চেষ্টা করুন। সর্দিজ্বরের সময় উষ্ণ পরিবেশ এবং উষ্ণ পোশাক পরিধান করলে দেখবেন ভালো লাগবে।

৩. পানির অপর নাম জীবন। এই কথা আমরা সকলেই জানি। সর্দিজ্বরে সুস্থ থাকতে প্রচুর পানি পান করুন। পানির পাশাপাশি ফলের রস ও পান করতে পারেন। এতে আপনার শরীরের পানিশূন্যতা কমবে।

৪. সর্দিজ্বরে গলা ব্যথা একটা সাধারণ বিষয়। তাই হালকা গরম পানিতে লবণ দিয়ে গার্গল করতে পারেন। অথবা হালকা গরম পানিতে লেবু এবং মধু দিয়ে পান করতে পারেন।

৫. সর্দিজ্বর থেকে বাঁচার ক্ষেত্রে ভিটামিন সি যুক্ত খাবার বেশি খান। মৌসুমি ফল, শাকসবজিতে প্রচুর ভিটামিন সি পাবেন।

৬. সর্দিজ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তি হাঁচি-কাশির সময় নাক-মুখ টিস্যু দিয়ে ঢেকে রাখুন। এরপর সেটি ফেলে দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলুন।

৭. সাধারণত কয়েকদিনের মধ্যেই মানুষের সর্দিজ্বর ভালও হয়ে যায়। সাতদিনের বেশি সর্দিজ্বর থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।