ঢাকা ০৬:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
ব্রেকিং নিউজ ::
রমাজান মাস উপলক্ষে আগামী ১২ই মার্চ থেকে ৭১ নিউজ বিডির হোম পেজে লাইভ টিভি চালু হবে। ৭১ নিউজ টিভিতে সাহরি এবং ইফতারের আগে লাইভ ইসলামী অনুষ্ঠান ও আযান সম্প্রচার করা হবে।

মামলা বাতিলের সুযোগ নেই, ক্ষতিপূরণের প্রশ্নই আসে না : আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০২:১৪:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪০৫ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলা বাতিলে সুযোগ নেই এবং এ সংক্রান্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রশ্নই আসে না। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদে গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খানের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ডেপুটি স্পিকার শামসুল হকের সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকের শুরুতে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপন করা হয়। বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন রহিত করে গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদে সাইবার নিরাপত্তা বিল পাস হয়েছে।

গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান প্রশ্নে জানতে চান, সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইতিমধ্যে যারা এই আইনের অপপ্রয়োগের কারণে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি, জেল-জুলুমের শিকার হয়েছেন, এখনও অনেকে কারাগারে আছেন, তাঁদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে কি-না। একই সঙ্গে বিষয়গুলো কীভাবে নিষ্পত্তি করা হবে, তা-ও আইনমন্ত্রীর কাছে জানতে চান তিনি।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আইনের অবস্থান হলো, যেসব অপরাধ পুরোনো আইনে করা হয়েছে, সেই পুরোনো আইনে যে শাস্তি, সেই শাস্তি অপরাধীকে আদালত প্রদান করবে। সংবিধানের ৩৫ অনুচ্ছেদে বিচার ও দণ্ড সম্পর্কে বলা হয়েছে, ‘অপরাধের দায়যুক্ত কার্যসংঘটনের সময় বলবৎ ছিল, এরূপ আইন ভঙ্গ করার অপরাধ ছাড়া কোনো ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করা যাবে না এবং অপরাধ সংঘটনের সময় বলবৎ সেই আইনবলে যে দণ্ড দেওয়া যেত, তাঁকে তার অধিক বা তা থেকে ভিন্ন দণ্ড দেওয়া যাবে না।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘সাইবার নিরাপত্তা আইনে রহিতকরণ ও হেফাজত সংক্রান্ত বিধান হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অধীন দায়ের করা অভিযোগ ও তদ্‌সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যক্রম বা সূচিত কোনো কার্যধারা বা দায়ের করা কোনো মামলা বা আপিল যেকোনো পর্যায়ে অনিষ্পন্ন থাকলে ওই কার্যধারা বা আপিল এমনভাবে চলমান থাকবে, যেন তা সাইবার নিরাপত্তা আইনের অধীন সূচিত বা দায়ের করা। ফলে ডিজিটাল নিরপত্তা আইনের অধীনে দায়ের করা মামলা বাতিল করার সুযোগ নেই এবং এ সংক্রান্তে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রশ্নই আসে না।’

নিউজটি শেয়ার করুন

মামলা বাতিলের সুযোগ নেই, ক্ষতিপূরণের প্রশ্নই আসে না : আইনমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:১৪:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলা বাতিলে সুযোগ নেই এবং এ সংক্রান্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রশ্নই আসে না। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদে গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খানের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ডেপুটি স্পিকার শামসুল হকের সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকের শুরুতে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপন করা হয়। বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন রহিত করে গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদে সাইবার নিরাপত্তা বিল পাস হয়েছে।

গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান প্রশ্নে জানতে চান, সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইতিমধ্যে যারা এই আইনের অপপ্রয়োগের কারণে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি, জেল-জুলুমের শিকার হয়েছেন, এখনও অনেকে কারাগারে আছেন, তাঁদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে কি-না। একই সঙ্গে বিষয়গুলো কীভাবে নিষ্পত্তি করা হবে, তা-ও আইনমন্ত্রীর কাছে জানতে চান তিনি।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আইনের অবস্থান হলো, যেসব অপরাধ পুরোনো আইনে করা হয়েছে, সেই পুরোনো আইনে যে শাস্তি, সেই শাস্তি অপরাধীকে আদালত প্রদান করবে। সংবিধানের ৩৫ অনুচ্ছেদে বিচার ও দণ্ড সম্পর্কে বলা হয়েছে, ‘অপরাধের দায়যুক্ত কার্যসংঘটনের সময় বলবৎ ছিল, এরূপ আইন ভঙ্গ করার অপরাধ ছাড়া কোনো ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করা যাবে না এবং অপরাধ সংঘটনের সময় বলবৎ সেই আইনবলে যে দণ্ড দেওয়া যেত, তাঁকে তার অধিক বা তা থেকে ভিন্ন দণ্ড দেওয়া যাবে না।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘সাইবার নিরাপত্তা আইনে রহিতকরণ ও হেফাজত সংক্রান্ত বিধান হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অধীন দায়ের করা অভিযোগ ও তদ্‌সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যক্রম বা সূচিত কোনো কার্যধারা বা দায়ের করা কোনো মামলা বা আপিল যেকোনো পর্যায়ে অনিষ্পন্ন থাকলে ওই কার্যধারা বা আপিল এমনভাবে চলমান থাকবে, যেন তা সাইবার নিরাপত্তা আইনের অধীন সূচিত বা দায়ের করা। ফলে ডিজিটাল নিরপত্তা আইনের অধীনে দায়ের করা মামলা বাতিল করার সুযোগ নেই এবং এ সংক্রান্তে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রশ্নই আসে না।’