ঢাকা ০৪:৩৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সংস্কারের অভাবে ক্ষতি হচ্ছে ষাটগম্বুজ মসজিদের

বাগেরহাট সংবাদদাতা
  • আপডেট সময় : ০৭:১০:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৮৪ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ বাগেরহাটের ষাটগম্বুজ মসজিদ। সুপ্রাচীন এই স্থাপনা দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম পর্যটন আকর্ষণ। তবে, লবণাক্ততা ও বৃষ্টিতে কালো রঙের আস্তরণ জমেছে মসজিদের গম্বুজে। সংস্কারের অভাবে ক্ষতি হচ্ছে ঐতিহাসিক এ স্থাপনার। এজন্য প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের উদ্যোগে মসজিদটির বহির্ভাগ ঘসে-মেজে দৃষ্টিনন্দন করার কাজ করছেন স্থানীয়রা।

ঐতিহাসিকাভাবে গুরুত্বপূর্ণ শহর বাগেরহাট। প্রায় ৬শ’ বছর আগে হযরত খানজাহান আলীর শাসনামলে এই শহরটিতে গড়ে তোলা হয় নানা স্থাপনা। বাগেরহাটের বিভিন্নস্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এসব স্থাপনার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ষাট গম্বুজ মসজিদ। মধ্যযুগের স্থাপত্যরীতির অনিন্দ্য এই নিদর্শন বিশ্ব ঐতিহ্যেরও অংশ। প্রতিদিনই এর স্থাপত্যশৈলী দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন পর্যটরা। তবে, নিয়মিত সংস্কারের অভাবে মসজিদটির ছাদে থাকা গম্বুজ ও বহিরাবরণে কালো রঙের আস্তরণ জমেছে।

ষাট গম্বুজ মসজিদের রক্ষাণাবেক্ষণের দায়িত্বে রয়েছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। স্থানীয়দের সহযোগীতায় এ স্থাপনা রক্ষায় উদ্যোগ নিয়েছে তারা। ঘসে-মেজে দৃষ্টিনন্দন করে তোলা হচ্ছে স্থাপনাটি।

পরিচর্যা না হওয়ায় বাগেরহাটের অন্য আরও অনেক মূল্যবান প্রত্ন নিদর্শন নষ্ট হচ্ছে। সরকারিভাবে নিয়মিত সংস্কারের উদ্যোগ নিলে সেগুলোও দীর্ঘকাল টিকে থাকবে বলে মনে করছেন পর্যটন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ।

নিউজটি শেয়ার করুন

সংস্কারের অভাবে ক্ষতি হচ্ছে ষাটগম্বুজ মসজিদের

আপডেট সময় : ০৭:১০:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ বাগেরহাটের ষাটগম্বুজ মসজিদ। সুপ্রাচীন এই স্থাপনা দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম পর্যটন আকর্ষণ। তবে, লবণাক্ততা ও বৃষ্টিতে কালো রঙের আস্তরণ জমেছে মসজিদের গম্বুজে। সংস্কারের অভাবে ক্ষতি হচ্ছে ঐতিহাসিক এ স্থাপনার। এজন্য প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের উদ্যোগে মসজিদটির বহির্ভাগ ঘসে-মেজে দৃষ্টিনন্দন করার কাজ করছেন স্থানীয়রা।

ঐতিহাসিকাভাবে গুরুত্বপূর্ণ শহর বাগেরহাট। প্রায় ৬শ’ বছর আগে হযরত খানজাহান আলীর শাসনামলে এই শহরটিতে গড়ে তোলা হয় নানা স্থাপনা। বাগেরহাটের বিভিন্নস্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এসব স্থাপনার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ষাট গম্বুজ মসজিদ। মধ্যযুগের স্থাপত্যরীতির অনিন্দ্য এই নিদর্শন বিশ্ব ঐতিহ্যেরও অংশ। প্রতিদিনই এর স্থাপত্যশৈলী দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন পর্যটরা। তবে, নিয়মিত সংস্কারের অভাবে মসজিদটির ছাদে থাকা গম্বুজ ও বহিরাবরণে কালো রঙের আস্তরণ জমেছে।

ষাট গম্বুজ মসজিদের রক্ষাণাবেক্ষণের দায়িত্বে রয়েছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। স্থানীয়দের সহযোগীতায় এ স্থাপনা রক্ষায় উদ্যোগ নিয়েছে তারা। ঘসে-মেজে দৃষ্টিনন্দন করে তোলা হচ্ছে স্থাপনাটি।

পরিচর্যা না হওয়ায় বাগেরহাটের অন্য আরও অনেক মূল্যবান প্রত্ন নিদর্শন নষ্ট হচ্ছে। সরকারিভাবে নিয়মিত সংস্কারের উদ্যোগ নিলে সেগুলোও দীর্ঘকাল টিকে থাকবে বলে মনে করছেন পর্যটন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ।