১০:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাটোর পৌরসভার সড়কগুলো চলাচলের অনুপযোগী

সড়কজুড়ে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত। একটু বৃষ্টি হলেই সেসব গর্তে পানি জমে যায়। প্রতিনিয়তই উল্টে পড়ছে যানবাহন। আহত হচ্ছেন যাত্রীরা। এ দুরবস্থা নাটোর পৌরসভার বেশিরভাগ সড়কের। দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় লোকজন এ সড়ক সংস্কারের দাবি জানালেও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। তবে, পৌর মেয়রের দাবি নিয়মিত ভাবে উন্নয়ন কার্যক্রম চলছে।

প্রায় ১৫৪ বছর আগে ১৮৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় নাটোর পৌরসভার। তবে এত বছরেও এই শহরে তেমন কোন উন্নয়ন নেই। বয়সের ভারে যেন জুুবুথুবু হয়ে পড়েছে শহরটি। পৌরসভার বেশিরভাগ সড়ক খানাখন্দে ভরা। বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে গর্তের, একটু বৃষ্টি হলেই সেসব গর্তে পানি জমে যায়। প্রতিনিয়তই উল্টে পড়ছে যানবাহন। আহত হচ্ছেন যাত্রীরা।

নিয়মিত ট্যাক্স পরিশোধ করলেও নাগরিক সেবা পাচ্ছেন না তারা। স্থানীয়দের অভিযোগ মেয়র কাউন্সিলররা ভোটের সময় আসলেও পরে আর খোঁজ খবর নেন না।

পরিবহন মালিকরা জানান, এমন রাস্তায় চলতে গিয়ে তাদের গাড়ির যন্ত্রাংশ লাগানোর পর পরই নষ্ট হয়ে যায়। মেরামত খরচে চলে যায় আয়ের বেশি অংশ।

তবে পৌর মেয়র উমা চৌধুরী জলির দাবি প্রাকৃতিক কারণে কাজের ব্যাঘাত ঘটলেও এখন নিয়মিত ভাবে সংস্কার করা হচ্ছে।

নাটোর পৌরসভাকে পরিকল্পিত উন্নয়নের সাথে উন্নত নাগরিক সেবা দেয়া হবে, এমনটাই প্রত্যাশা শহরবাসীর।

নাটোর পৌরসভার সড়কগুলো চলাচলের অনুপযোগী

আপডেট : ০৬:৩৮:৪৩ পূর্বাহ্ন, রোববার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সড়কজুড়ে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত। একটু বৃষ্টি হলেই সেসব গর্তে পানি জমে যায়। প্রতিনিয়তই উল্টে পড়ছে যানবাহন। আহত হচ্ছেন যাত্রীরা। এ দুরবস্থা নাটোর পৌরসভার বেশিরভাগ সড়কের। দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় লোকজন এ সড়ক সংস্কারের দাবি জানালেও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। তবে, পৌর মেয়রের দাবি নিয়মিত ভাবে উন্নয়ন কার্যক্রম চলছে।

প্রায় ১৫৪ বছর আগে ১৮৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় নাটোর পৌরসভার। তবে এত বছরেও এই শহরে তেমন কোন উন্নয়ন নেই। বয়সের ভারে যেন জুুবুথুবু হয়ে পড়েছে শহরটি। পৌরসভার বেশিরভাগ সড়ক খানাখন্দে ভরা। বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে গর্তের, একটু বৃষ্টি হলেই সেসব গর্তে পানি জমে যায়। প্রতিনিয়তই উল্টে পড়ছে যানবাহন। আহত হচ্ছেন যাত্রীরা।

নিয়মিত ট্যাক্স পরিশোধ করলেও নাগরিক সেবা পাচ্ছেন না তারা। স্থানীয়দের অভিযোগ মেয়র কাউন্সিলররা ভোটের সময় আসলেও পরে আর খোঁজ খবর নেন না।

পরিবহন মালিকরা জানান, এমন রাস্তায় চলতে গিয়ে তাদের গাড়ির যন্ত্রাংশ লাগানোর পর পরই নষ্ট হয়ে যায়। মেরামত খরচে চলে যায় আয়ের বেশি অংশ।

তবে পৌর মেয়র উমা চৌধুরী জলির দাবি প্রাকৃতিক কারণে কাজের ব্যাঘাত ঘটলেও এখন নিয়মিত ভাবে সংস্কার করা হচ্ছে।

নাটোর পৌরসভাকে পরিকল্পিত উন্নয়নের সাথে উন্নত নাগরিক সেবা দেয়া হবে, এমনটাই প্রত্যাশা শহরবাসীর।