ঢাকা ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পেল শান্তিনিকেতন

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৬৬ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট বা বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পেলো বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শান্তিনিকেতন।

রোববার (১৭ই সেপ্টেম্বর) ‘এক্স’-এ এক পোস্টে বিশ্ব সংস্থাটি এ ঘোষণা দিয়েছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি তার এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয় পশ্চিমবঙ্গের বোলপুরে অবস্থিত একটি আশ্রম এবং শিক্ষাকেন্দ্র শান্তিনিকেতন। বিশ্বে প্রথমবার একটি সচল বিশ্ববিদ্যালয় পেলো ইউনেস্কোর সম্মানজনক স্বীকৃতি। ১৮৬৩ সালে, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতা দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর নিভৃতে ঈশ্বরচিন্তা এবং ধর্মালোচনার উদ্দেশ্যে সেটি প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯০১ সালে রবীন্দ্রনাথ শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। যা বর্তমানে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৯১৮ সালে বিশ্বভারতীর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এর তিনবছর পর বিশ্বকবির উপস্থিতিতেই বিশ্বভারতীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন আচার্য ব্রজেন্দ্রনাথ শীল। পরে ১৯৫১ সালে একে কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঘোষণা করে ভারত।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পেল শান্তিনিকেতন

আপডেট সময় : ০৯:৩৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট বা বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পেলো বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শান্তিনিকেতন।

রোববার (১৭ই সেপ্টেম্বর) ‘এক্স’-এ এক পোস্টে বিশ্ব সংস্থাটি এ ঘোষণা দিয়েছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি তার এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয় পশ্চিমবঙ্গের বোলপুরে অবস্থিত একটি আশ্রম এবং শিক্ষাকেন্দ্র শান্তিনিকেতন। বিশ্বে প্রথমবার একটি সচল বিশ্ববিদ্যালয় পেলো ইউনেস্কোর সম্মানজনক স্বীকৃতি। ১৮৬৩ সালে, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতা দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর নিভৃতে ঈশ্বরচিন্তা এবং ধর্মালোচনার উদ্দেশ্যে সেটি প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯০১ সালে রবীন্দ্রনাথ শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। যা বর্তমানে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৯১৮ সালে বিশ্বভারতীর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এর তিনবছর পর বিশ্বকবির উপস্থিতিতেই বিশ্বভারতীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন আচার্য ব্রজেন্দ্রনাথ শীল। পরে ১৯৫১ সালে একে কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঘোষণা করে ভারত।