ঢাকা ০৫:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ভারতীয় শীর্ষ কূটনীতিককে বহিষ্কার করলেন ট্রুডো

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৯:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৩৭৮ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

খালিস্তানি সন্ত্রাসী হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে অটোয়ায় নিযুক্ত ভারতীয় এক শীর্ষ কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে কানাডা। তবে কানাডীয় সরকার তাঁর নাম প্রকাশ করেনি। গতকাল সোমবার তাঁকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, নয়াদিল্লি ও অটোয়ার মধ্যে এমনিতেই তিক্ততাপূর্ণ সম্পর্ক। এর মধ্যে কানাডা সরকারের নতুন এই পদক্ষেপ দুই দেশের সম্পর্কে তলানিতে নিয়ে যাবে।

গত জুনে কানাডায় মৃত্যু হয়েছিল খলিস্তানি জঙ্গি হরদীপ সিং নিজ্জারের। সেই ঘটনায় ভারতীয় এক কূটনীতিকের যোগ আছে বলে দাবি করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। গতকাল দুপুরে তিনি সংসদীয় বিরোধী দলের জরুরি অধিবেশনে বলেন, ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় গত জুন মাসে খালিস্তানি সন্ত্রাসী হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যার সঙ্গে ভারতীয় এজেন্টদের যুক্ত থাকার ‘বিশ্বাসযোগ্য অভিযোগ’ প্রমাণ আমাদের কাছে রয়েছে।

কানাডায়ীয় প্রধানমন্ত্রী ভারত সরকারকে বিষয়টি পরিষ্কার করতে সহযোগিতা করার জন্য ‘যৌক্তিক শর্তে’ আহ্বান জানিয়েছেন।

কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানিয়া জোলি বলেছেন, আজ আমরা একজন সিনিয়র ভারতীয় কূটনীতিককে কানাডা থেকে বহিষ্কার করেছি। তবে তিনি ওই কর্মকর্তার নাম প্রকাশ করেননি। জোলি বলেন, বহিষ্কৃত কূটনীতিক কানাডায় ভারতের বিদেশী গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইংয়ের (আরএডব্লিউ) প্রধান।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হরদীপ সিং নিজ্জারের অমীমাংসিত হত্যাকাণ্ড নিয়ে ভারত ও কানাডার মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে এবং অটোয়া যেভাবে সন্ত্রাসীদের মোকাবেলা করেছে তা নিয়ে ভারত সরকারের অসন্তুষ্টি রয়েছে। ভারত অভিযোগ করে বলেছে, খালিস্তানি সমর্থকদের কার্যকলাপের প্রতি অন্ধভাবে সমর্থন করে যাচ্ছে কানাডা।

সম্প্রতি জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ভারত সফরে এসে খলিস্তান ইস্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছ থেকে কথা শুনতে হয়েছে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে। এরপর দেশে ফিরে কয়েক দিনের মাথায় তিনি ভারতীয় কূটনীতিককে বহিষ্কার করলেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যশ হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, গত জুনে কানাডার গুরুদ্বারের ভেতরেই গুলি করে হত্যা করা হয় খলিস্তানপন্থী জঙ্গি হরদীপ সিং নিজ্জারকে। হরদীপকে ২০ বারেরও বেশি গুলি করা হয়েছিল। কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশের পঞ্জাবি অধ্যুষিত সারে অঞ্চলে বাস করতেন হরদীপ। বিগত কয়েক বছরে কানাডার ভ্যানকুবারে ভারতীয় হাইকমিশনের সামনে খলিস্তানি বিক্ষোভের নেপথ্যে ছিলেন এই হরদীপ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ভারতীয় শীর্ষ কূটনীতিককে বহিষ্কার করলেন ট্রুডো

আপডেট সময় : ০৯:৩৯:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

খালিস্তানি সন্ত্রাসী হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে অটোয়ায় নিযুক্ত ভারতীয় এক শীর্ষ কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে কানাডা। তবে কানাডীয় সরকার তাঁর নাম প্রকাশ করেনি। গতকাল সোমবার তাঁকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, নয়াদিল্লি ও অটোয়ার মধ্যে এমনিতেই তিক্ততাপূর্ণ সম্পর্ক। এর মধ্যে কানাডা সরকারের নতুন এই পদক্ষেপ দুই দেশের সম্পর্কে তলানিতে নিয়ে যাবে।

গত জুনে কানাডায় মৃত্যু হয়েছিল খলিস্তানি জঙ্গি হরদীপ সিং নিজ্জারের। সেই ঘটনায় ভারতীয় এক কূটনীতিকের যোগ আছে বলে দাবি করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। গতকাল দুপুরে তিনি সংসদীয় বিরোধী দলের জরুরি অধিবেশনে বলেন, ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় গত জুন মাসে খালিস্তানি সন্ত্রাসী হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যার সঙ্গে ভারতীয় এজেন্টদের যুক্ত থাকার ‘বিশ্বাসযোগ্য অভিযোগ’ প্রমাণ আমাদের কাছে রয়েছে।

কানাডায়ীয় প্রধানমন্ত্রী ভারত সরকারকে বিষয়টি পরিষ্কার করতে সহযোগিতা করার জন্য ‘যৌক্তিক শর্তে’ আহ্বান জানিয়েছেন।

কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানিয়া জোলি বলেছেন, আজ আমরা একজন সিনিয়র ভারতীয় কূটনীতিককে কানাডা থেকে বহিষ্কার করেছি। তবে তিনি ওই কর্মকর্তার নাম প্রকাশ করেননি। জোলি বলেন, বহিষ্কৃত কূটনীতিক কানাডায় ভারতের বিদেশী গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইংয়ের (আরএডব্লিউ) প্রধান।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হরদীপ সিং নিজ্জারের অমীমাংসিত হত্যাকাণ্ড নিয়ে ভারত ও কানাডার মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে এবং অটোয়া যেভাবে সন্ত্রাসীদের মোকাবেলা করেছে তা নিয়ে ভারত সরকারের অসন্তুষ্টি রয়েছে। ভারত অভিযোগ করে বলেছে, খালিস্তানি সমর্থকদের কার্যকলাপের প্রতি অন্ধভাবে সমর্থন করে যাচ্ছে কানাডা।

সম্প্রতি জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ভারত সফরে এসে খলিস্তান ইস্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছ থেকে কথা শুনতে হয়েছে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে। এরপর দেশে ফিরে কয়েক দিনের মাথায় তিনি ভারতীয় কূটনীতিককে বহিষ্কার করলেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যশ হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, গত জুনে কানাডার গুরুদ্বারের ভেতরেই গুলি করে হত্যা করা হয় খলিস্তানপন্থী জঙ্গি হরদীপ সিং নিজ্জারকে। হরদীপকে ২০ বারেরও বেশি গুলি করা হয়েছিল। কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশের পঞ্জাবি অধ্যুষিত সারে অঞ্চলে বাস করতেন হরদীপ। বিগত কয়েক বছরে কানাডার ভ্যানকুবারে ভারতীয় হাইকমিশনের সামনে খলিস্তানি বিক্ষোভের নেপথ্যে ছিলেন এই হরদীপ।