ঢাকা ০১:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পিরোজপুরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি চাল উৎপাদনের আশা

পিরোজপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৭:২৬:৫০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৯৩ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সদ্য সমাপ্ত আমন চাষ মৌসুমে জেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও ১ হাজার ৮১৪ হেক্টরের অধিক জমিতে আমন চারা রোপণ করা হয়েছে। এসব জমিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ হাজার ৮৮৪ টন অধিক চাল উৎপাদন হবার আশা প্রকাশ করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পিরোজপুরের উপ-পরিচালকের কার্যালয়।

জানাগেছে, ২০২৩-২৪ আমন চাষ মৌসুমে এ জেলার ৭ উপজেলা ও ৪ পৌর এলাকায় ৬৩ হাজার ৮০০ হেক্টরে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। আমন চাষ শেষে দেখাগেছে যে, লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে ১ হাজার ৮১৪ হেক্টর জমিতে অধিক আমন চাষ করা হয়েছে। চলতি আমন মৌসুমে হাইব্রিড ৫৫০ হেক্টরে, উফসী ১২ হাজার হেক্টরে, স্থানীয় জাত ৪৯ হাজার ২০০ হেক্টরে আবাদ করে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়।

চাষাবাদ শেষে বিভিন্ন উপজেলার কৃষি অফিস থেকে প্রাপ্ত তথ্যসূত্রে জানাগেছে, হাইব্রিড ৬৪৩ হেক্টরে, উফসী ১৩ হাজার ৩১৩ হেক্টরে, স্থানীয় ৪৯ হাজার ৮০৩ হেক্টর মিলিয়ে মোট ৬৫ হাজার ৬১৪ হেক্টরে চাষ হযেছে। পিরোজপুরের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মো. নজরুল ইসলাম সিকদার জানান, আমন চাষে চাষিদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে বীজ, সার প্রণোদনা দেয়ায় তারা উৎসাহিত হচ্ছে এবং ফসলের জমি ও ফসল উৎপাদনের পরিমাণও ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এ মৌসুমে এ জেলায় ১ হাজার ৮১৪ হেক্টর জমিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক আমন চাষ হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পিরোজপুরের জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী কৃষি অফিসার অরুণ রায় জানান- ঝড়, বন্যাসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে জমি চাষের এবং চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে।

জেলা কৃষি অফিস সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে এ জেলায় চাষের ক্ষেত্রে ৯২ ভাগ এবং ধান মাড়াই ক্ষেত্রে ৯৬ ভাগ যান্ত্রিকীকরণ সম্ভব হয়েছে এবং অদূর ভবিষ্যতে কৃষিতে শতভাগ যান্ত্রিকীকরণ হয়ে যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

পিরোজপুরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি চাল উৎপাদনের আশা

আপডেট সময় : ০৭:২৬:৫০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সদ্য সমাপ্ত আমন চাষ মৌসুমে জেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও ১ হাজার ৮১৪ হেক্টরের অধিক জমিতে আমন চারা রোপণ করা হয়েছে। এসব জমিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ হাজার ৮৮৪ টন অধিক চাল উৎপাদন হবার আশা প্রকাশ করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পিরোজপুরের উপ-পরিচালকের কার্যালয়।

জানাগেছে, ২০২৩-২৪ আমন চাষ মৌসুমে এ জেলার ৭ উপজেলা ও ৪ পৌর এলাকায় ৬৩ হাজার ৮০০ হেক্টরে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। আমন চাষ শেষে দেখাগেছে যে, লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে ১ হাজার ৮১৪ হেক্টর জমিতে অধিক আমন চাষ করা হয়েছে। চলতি আমন মৌসুমে হাইব্রিড ৫৫০ হেক্টরে, উফসী ১২ হাজার হেক্টরে, স্থানীয় জাত ৪৯ হাজার ২০০ হেক্টরে আবাদ করে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়।

চাষাবাদ শেষে বিভিন্ন উপজেলার কৃষি অফিস থেকে প্রাপ্ত তথ্যসূত্রে জানাগেছে, হাইব্রিড ৬৪৩ হেক্টরে, উফসী ১৩ হাজার ৩১৩ হেক্টরে, স্থানীয় ৪৯ হাজার ৮০৩ হেক্টর মিলিয়ে মোট ৬৫ হাজার ৬১৪ হেক্টরে চাষ হযেছে। পিরোজপুরের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মো. নজরুল ইসলাম সিকদার জানান, আমন চাষে চাষিদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে বীজ, সার প্রণোদনা দেয়ায় তারা উৎসাহিত হচ্ছে এবং ফসলের জমি ও ফসল উৎপাদনের পরিমাণও ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এ মৌসুমে এ জেলায় ১ হাজার ৮১৪ হেক্টর জমিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক আমন চাষ হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পিরোজপুরের জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী কৃষি অফিসার অরুণ রায় জানান- ঝড়, বন্যাসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে জমি চাষের এবং চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে।

জেলা কৃষি অফিস সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে এ জেলায় চাষের ক্ষেত্রে ৯২ ভাগ এবং ধান মাড়াই ক্ষেত্রে ৯৬ ভাগ যান্ত্রিকীকরণ সম্ভব হয়েছে এবং অদূর ভবিষ্যতে কৃষিতে শতভাগ যান্ত্রিকীকরণ হয়ে যাবে।