ঢাকা ০৪:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সংস্কারের অভাবে বেহাল সাতক্ষীরার ড্রেনেজ ব্যবস্থা

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা
  • আপডেট সময় : ০৭:৪৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৩৪ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থা সাতক্ষীরা পৌর এলাকার ড্রেনেজ ব্যবস্থার। সামান্য বৃষ্টি হলেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। এতে দুর্ভোগে পড়ছেন পৌরবাসী। এদিকে, ড্রেনে জমা পানিতে মশার কারণে জীবন অতিষ্ট হয়ে উঠছে স্থানীয়দের। বেড়ে গিয়েছে ডেঙ্গুর প্রকোপ।

সাতক্ষীরা পৌরসভার মাঠ পাড়া, বদ্দিপুর কলোনী, পুরাতন সাতক্ষীরা, মেঠো পাড়া, কুখরালী গ্রামের টাবরার ডাঙ্গী এলাকাসহ প্রতিটি ওয়ার্ডের ড্রেনেজ ব্যবস্থা একেবারে নাজুক। বৃষ্টি হলেই রাস্তায় প্রায় হাঁটু সমান পানি জমে থাকে। এছাড়া রাস্তা-ঘাটে পানি জমে থাকার কারণে এডিস মশা বিস্তার লাভ করছে এবং এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপও বৃদ্ধি পেয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ভোটের সময় ছাড়া নাগরিকদের কথা কেউ শুনতে বা দেখতে আসেন না। চলাচলে ভোগান্তির পাশাপাশি এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার পরও জনপ্রতিনিধি বা প্রশাসনের কারো কোন উদ্যোগ লক্ষ্য করা যায়নি।

পৌরসভার মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি জানালেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে যে বরাদ্দ দেয়া হয় তা অপ্রতুল। তবে সংকট নিরসনের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

পৌরবাসীর দুর্ভোগ কমাতে উদ্যোগ নেয়া হবে বলে আশ্বাস দেন মেয়র।

নিউজটি শেয়ার করুন

সংস্কারের অভাবে বেহাল সাতক্ষীরার ড্রেনেজ ব্যবস্থা

আপডেট সময় : ০৭:৪৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থা সাতক্ষীরা পৌর এলাকার ড্রেনেজ ব্যবস্থার। সামান্য বৃষ্টি হলেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। এতে দুর্ভোগে পড়ছেন পৌরবাসী। এদিকে, ড্রেনে জমা পানিতে মশার কারণে জীবন অতিষ্ট হয়ে উঠছে স্থানীয়দের। বেড়ে গিয়েছে ডেঙ্গুর প্রকোপ।

সাতক্ষীরা পৌরসভার মাঠ পাড়া, বদ্দিপুর কলোনী, পুরাতন সাতক্ষীরা, মেঠো পাড়া, কুখরালী গ্রামের টাবরার ডাঙ্গী এলাকাসহ প্রতিটি ওয়ার্ডের ড্রেনেজ ব্যবস্থা একেবারে নাজুক। বৃষ্টি হলেই রাস্তায় প্রায় হাঁটু সমান পানি জমে থাকে। এছাড়া রাস্তা-ঘাটে পানি জমে থাকার কারণে এডিস মশা বিস্তার লাভ করছে এবং এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপও বৃদ্ধি পেয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ভোটের সময় ছাড়া নাগরিকদের কথা কেউ শুনতে বা দেখতে আসেন না। চলাচলে ভোগান্তির পাশাপাশি এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার পরও জনপ্রতিনিধি বা প্রশাসনের কারো কোন উদ্যোগ লক্ষ্য করা যায়নি।

পৌরসভার মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি জানালেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে যে বরাদ্দ দেয়া হয় তা অপ্রতুল। তবে সংকট নিরসনের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

পৌরবাসীর দুর্ভোগ কমাতে উদ্যোগ নেয়া হবে বলে আশ্বাস দেন মেয়র।