ঢাকা ০১:১৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর প্রথমবারের মতো কানাডা সফরে জেলেনস্কি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:৩১:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৩৭৬ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রুশ বাহিনী হামলা শুরু করার পর প্রথমবারের মতো কানাডা সফরে গিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। গতকাল শুক্রবার তিনি কানাডার পার্লামেন্টে বক্তৃতাও দিয়েছেন। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

কানাডীয় পার্লামেন্টে দেওয়া বক্তৃতায় জেলেনস্কি বলেন, মস্কোকে এই যুদ্ধে অবশ্যই পরাজিত হতে হবে। তারা সবসময় পরাজিত হয়েই এসেছে।

কানাডার প্রশংসা করে ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট বলেন, ইউক্রেনের স্বাধীনতা রক্ষায় কানাডা আমদের পাশে রয়েছে। তাদের অবদান সত্যিই প্রশংসনীয়। কানাডার সহযোগিতা ইউক্রেন যুদ্ধে হাজার হাজার মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে। ইউক্রেনকে আর্থিক ও সামরিক সহযোগিতার পাশাপাশি হাজার হাজার ইউক্রেনীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য কানাডাকে ধন্যবাদ জানাই।

এদিকে ইউক্রেনকে ৬৫ কোটি কানাডীয় ডলার সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তিনি বলেন, আগামী তিন বছরের জন্য ইউক্রেনের প্রতি কানাডার সাহায্য ও সমর্থন অব্যাহত থাকবে। এসব সাহায্যের মধ্যে ৫০টি সাঁজোয়া যানের পাশাপাশি এফ-১৬ পাইলটদের প্রশিক্ষণ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

গতকাল শুক্রবার ক্রিমিয়ার সেভাস্তোপোল বন্দরে অবস্থিত রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরীয় নৌবাহিনীর সদর দপ্তরে ইউক্রেনের ‘সফল’ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর পরই কানাডার পক্ষ থেকে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি পাওয়া গেল। যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ইউক্রেনকে ৯০০ কোটি ডলারের সামরিক, আর্থিক এবং মানবিক সহায়তা দিয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, গত বুধবার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে বক্তৃতার পর ওয়াশিংটনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে বৈঠক করেন জেলেনস্কি। এরপর বৃহস্পতিবার তিনি কানাডা সফরে যান।

নিউজটি শেয়ার করুন

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর প্রথমবারের মতো কানাডা সফরে জেলেনস্কি

আপডেট সময় : ০৮:৩১:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রুশ বাহিনী হামলা শুরু করার পর প্রথমবারের মতো কানাডা সফরে গিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। গতকাল শুক্রবার তিনি কানাডার পার্লামেন্টে বক্তৃতাও দিয়েছেন। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

কানাডীয় পার্লামেন্টে দেওয়া বক্তৃতায় জেলেনস্কি বলেন, মস্কোকে এই যুদ্ধে অবশ্যই পরাজিত হতে হবে। তারা সবসময় পরাজিত হয়েই এসেছে।

কানাডার প্রশংসা করে ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট বলেন, ইউক্রেনের স্বাধীনতা রক্ষায় কানাডা আমদের পাশে রয়েছে। তাদের অবদান সত্যিই প্রশংসনীয়। কানাডার সহযোগিতা ইউক্রেন যুদ্ধে হাজার হাজার মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে। ইউক্রেনকে আর্থিক ও সামরিক সহযোগিতার পাশাপাশি হাজার হাজার ইউক্রেনীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য কানাডাকে ধন্যবাদ জানাই।

এদিকে ইউক্রেনকে ৬৫ কোটি কানাডীয় ডলার সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তিনি বলেন, আগামী তিন বছরের জন্য ইউক্রেনের প্রতি কানাডার সাহায্য ও সমর্থন অব্যাহত থাকবে। এসব সাহায্যের মধ্যে ৫০টি সাঁজোয়া যানের পাশাপাশি এফ-১৬ পাইলটদের প্রশিক্ষণ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

গতকাল শুক্রবার ক্রিমিয়ার সেভাস্তোপোল বন্দরে অবস্থিত রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরীয় নৌবাহিনীর সদর দপ্তরে ইউক্রেনের ‘সফল’ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর পরই কানাডার পক্ষ থেকে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি পাওয়া গেল। যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ইউক্রেনকে ৯০০ কোটি ডলারের সামরিক, আর্থিক এবং মানবিক সহায়তা দিয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, গত বুধবার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে বক্তৃতার পর ওয়াশিংটনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে বৈঠক করেন জেলেনস্কি। এরপর বৃহস্পতিবার তিনি কানাডা সফরে যান।