ঢাকা ১০:৫৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আমেরিকার ভিসা নীতি সরকারের জন্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৩:৩১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৩৭১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আমেরিকার দেওয়া ভিসা নীতি সরকারের জন্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি দাবি করেন, সরকারের জন্যই আমেরিকার ভিসা নীতি- এটা শুধু বাংলাদেশের গণমাধ্যম ছড়িয়েছে। এটা তাদের (আমেরিকার) কথা নয়। নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে অনুষ্ঠিত ইমিগ্র্যান্ট ডে এবং ট্রেড ফেয়ারে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

অন্যদিকে ভিসা নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বাংলাদেশ চিন্তিত নয়। শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র গণতান্ত্রিক দেশ, তেমনি আমরাও।

তিনি বলেন, বৈশ্বিক শক্তি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র অন্যদের ওপর ক্ষমতা প্রভাব খাটাতে পারে। কিন্তু আমরা এ নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না। কারণ আমরা জানি কীভাবে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাদ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরও বলেন, আমাদের ভোটাররাও চিন্তিত নয়। কারণ তারা সম্ভবত যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ভাবছে না।

বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক কোনো টানাপড়েন নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তারা (আমেরিকা) যে ভিসা নীতি দিয়েছে সেটা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য। একটি সুষ্ঠু, অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করার জন্য সরকার বদ্ধ পরিকর। তাই তাদের স্যাংশন সরকারের কারও জন্য নয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক পার করছে বাংলাদেশ। আগামী ৫০ বছর তাদের সঙ্গে এই সম্পর্ক অটুট থাকবে। জো বাইডেন নিজেও এটা জানিয়েছেন।

সরকারের জন্যই আমেরিকার ভিসা নীতি- এটা শুধু বাংলাদেশের গণমাধ্যম ছড়িয়েছে বলেও দাবি করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, এটা তাদের (আমেরিকার) কথা নয়। একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা তৈরি করেছে। নির্বাচন কমিশন প্রভাবমুক্ত হয়ে স্বাধীনভাবে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কাজ করছে। তাই যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন নিয়ে কী বলল না বলল তা নিয়ে শঙ্কিত নয় সরকার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনে অন্য দেশ থেকে পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়টি ঢং। তাই সরকার যুক্তরাষ্ট্র থেকে পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়ে ভাবছেনা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আমেরিকার ভিসা নীতি সরকারের জন্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৬:৫৩:৩১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আমেরিকার দেওয়া ভিসা নীতি সরকারের জন্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি দাবি করেন, সরকারের জন্যই আমেরিকার ভিসা নীতি- এটা শুধু বাংলাদেশের গণমাধ্যম ছড়িয়েছে। এটা তাদের (আমেরিকার) কথা নয়। নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে অনুষ্ঠিত ইমিগ্র্যান্ট ডে এবং ট্রেড ফেয়ারে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

অন্যদিকে ভিসা নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বাংলাদেশ চিন্তিত নয়। শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র গণতান্ত্রিক দেশ, তেমনি আমরাও।

তিনি বলেন, বৈশ্বিক শক্তি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র অন্যদের ওপর ক্ষমতা প্রভাব খাটাতে পারে। কিন্তু আমরা এ নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না। কারণ আমরা জানি কীভাবে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাদ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরও বলেন, আমাদের ভোটাররাও চিন্তিত নয়। কারণ তারা সম্ভবত যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ভাবছে না।

বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক কোনো টানাপড়েন নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তারা (আমেরিকা) যে ভিসা নীতি দিয়েছে সেটা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য। একটি সুষ্ঠু, অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করার জন্য সরকার বদ্ধ পরিকর। তাই তাদের স্যাংশন সরকারের কারও জন্য নয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক পার করছে বাংলাদেশ। আগামী ৫০ বছর তাদের সঙ্গে এই সম্পর্ক অটুট থাকবে। জো বাইডেন নিজেও এটা জানিয়েছেন।

সরকারের জন্যই আমেরিকার ভিসা নীতি- এটা শুধু বাংলাদেশের গণমাধ্যম ছড়িয়েছে বলেও দাবি করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, এটা তাদের (আমেরিকার) কথা নয়। একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা তৈরি করেছে। নির্বাচন কমিশন প্রভাবমুক্ত হয়ে স্বাধীনভাবে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কাজ করছে। তাই যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন নিয়ে কী বলল না বলল তা নিয়ে শঙ্কিত নয় সরকার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনে অন্য দেশ থেকে পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়টি ঢং। তাই সরকার যুক্তরাষ্ট্র থেকে পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়ে ভাবছেনা।