ঢাকা ০৭:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আফগানিস্তানে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ১৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:৩৪:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৯১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আফগানিস্তানে ৬.৩ মাত্রার ভয়াবহ ভূমিকম্পে ১৪ জন নিহত হয়েছে, এতে আহত হয়েছেন আরও ৭৮ জন। শনিবার দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে এমন ভূমিকম্প অনুভূত হয়। এক প্রতিবেদনে এমন খবর দিয়েছে রয়টার্স।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬.৩। প্রথম ভূকিকম্পের পর আর তিনবার আফটার শক অনুভূত হয়। এর মাত্রা ছিল ৫.৫, ৪.৭, ৬.৩ ও ৫.৯।

প্রথম ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ১৪ কিলোমিটার গভীরে। আফগান কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভূমিকম্পে বহু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেকে আটকা পড়েছেন।

বশির আহমেদ নামে ৪৫ বছর বয়সী এক বাসিন্দা বলেন, আমরা অফিসে ছিলাম। হঠাৎ ভবনটি কাঁপতে শুরু করে। আমি আমার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছি না। নেটওয়ার্ক সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এটি ভয়ংকর ছিল।

ইরান সীমান্ত থেকে ১২০ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত হেরাত শহর। আফগানিস্তানের সাংস্কৃতিক রাজধানী বলা হয় শহরটিকে। সেখানে প্রায় ১৯ লাখ মানুষ বসবাস করে।

এর আগে গত জুনে দেশটির পাকতিকা প্রদেশে ৫ দশমিক ৯ মাত্রার এক ভূমিকম্প আঘাত হানে। এতে এক হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারায়। সূত্র: এনডিটিভি

নিউজটি শেয়ার করুন

আফগানিস্তানে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ১৪

আপডেট সময় : ১২:৩৪:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩

আফগানিস্তানে ৬.৩ মাত্রার ভয়াবহ ভূমিকম্পে ১৪ জন নিহত হয়েছে, এতে আহত হয়েছেন আরও ৭৮ জন। শনিবার দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে এমন ভূমিকম্প অনুভূত হয়। এক প্রতিবেদনে এমন খবর দিয়েছে রয়টার্স।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬.৩। প্রথম ভূকিকম্পের পর আর তিনবার আফটার শক অনুভূত হয়। এর মাত্রা ছিল ৫.৫, ৪.৭, ৬.৩ ও ৫.৯।

প্রথম ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ১৪ কিলোমিটার গভীরে। আফগান কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভূমিকম্পে বহু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেকে আটকা পড়েছেন।

বশির আহমেদ নামে ৪৫ বছর বয়সী এক বাসিন্দা বলেন, আমরা অফিসে ছিলাম। হঠাৎ ভবনটি কাঁপতে শুরু করে। আমি আমার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছি না। নেটওয়ার্ক সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এটি ভয়ংকর ছিল।

ইরান সীমান্ত থেকে ১২০ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত হেরাত শহর। আফগানিস্তানের সাংস্কৃতিক রাজধানী বলা হয় শহরটিকে। সেখানে প্রায় ১৯ লাখ মানুষ বসবাস করে।

এর আগে গত জুনে দেশটির পাকতিকা প্রদেশে ৫ দশমিক ৯ মাত্রার এক ভূমিকম্প আঘাত হানে। এতে এক হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারায়। সূত্র: এনডিটিভি