০৪:২২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আবারও করোনার সংক্রমণ বেড়েছে সিঙ্গাপুরে

দীর্ঘদিন পর আবারও করোনা হানা দিয়েছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশ সিঙ্গাপুরে। শুক্রবার (৬ অক্টোবর) এক সাক্ষাৎকারে দেশবাসীকে এ বিষয়ে সতর্কবার্তা দিয়ে কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী অং ইয়ে কুং।

সিঙ্গাপুরের টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ এশিয়াকে শুক্রবার দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অং ইয়ে কুং বলেন, তিন সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন গড়ে ২ হাজার মানুষ করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হচ্ছে। এর আগে এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার।

করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হওয়া রোগীদের ৭৫ ভাগই করোনার ওমিক্রন ভাইরাসের দুই উপধরন ইজি পয়েন্ট ৫ এবং এইচকে পয়েন্ট ৩-এ আক্রান্ত বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী। খবর এএফপির।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, সিঙ্গাপুরে করোনার সর্বশেষ ঢেউ দেখা দিয়েছিল গত বছর মার্চ-এপ্রিলে। এপ্রিলের শুরুর দিকে যখন সংক্রণ পরিস্থিতি সবচেয়ে গুরুতর ছিল, সে সময় প্রতিদিন গড়ে ৪ হাজার মানুষ করোনা পজিটিভ হিসেবে শণাক্ত হয়েছেন।

তবে সাক্ষাৎকারে মন্ত্রী বলেছেন, সাম্প্রতিক ঢেউয়ে কারো মৃত্যু নিয়ে শঙ্কিত নন তিনি, চিন্তিত হাসপাতালে রোগীর চাপ নিয়ে। তবে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো বিধিনিষেধ জারি করার পরিকল্পনা নেই বলেও জানিয়েছেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী অং ইয়ে কুং বলেন, প্রথমত, করোনা মহামারির শুরুর দিনগুলো পেরিয়ে এসেছি। দ্বিতীয়ত সিঙ্গাপুরের অধিকাংশ প্রাপ্তবয়স্ক করোনার টিকার ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন। এছাড়া টিকা ও করোনার ওষুধের পর্যাপ্ত মজুতও আছে।

অং ইয়ে কুং আরও বলেন, দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ, আপনারা নিজ উদ্যোগে যতদূর সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বিধিনিষেধ জারির পরিকল্পনা নেই।

আবারও করোনার সংক্রমণ বেড়েছে সিঙ্গাপুরে

আপডেট : ০৫:৪১:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩

দীর্ঘদিন পর আবারও করোনা হানা দিয়েছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশ সিঙ্গাপুরে। শুক্রবার (৬ অক্টোবর) এক সাক্ষাৎকারে দেশবাসীকে এ বিষয়ে সতর্কবার্তা দিয়ে কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী অং ইয়ে কুং।

সিঙ্গাপুরের টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ এশিয়াকে শুক্রবার দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অং ইয়ে কুং বলেন, তিন সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন গড়ে ২ হাজার মানুষ করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হচ্ছে। এর আগে এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার।

করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হওয়া রোগীদের ৭৫ ভাগই করোনার ওমিক্রন ভাইরাসের দুই উপধরন ইজি পয়েন্ট ৫ এবং এইচকে পয়েন্ট ৩-এ আক্রান্ত বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী। খবর এএফপির।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, সিঙ্গাপুরে করোনার সর্বশেষ ঢেউ দেখা দিয়েছিল গত বছর মার্চ-এপ্রিলে। এপ্রিলের শুরুর দিকে যখন সংক্রণ পরিস্থিতি সবচেয়ে গুরুতর ছিল, সে সময় প্রতিদিন গড়ে ৪ হাজার মানুষ করোনা পজিটিভ হিসেবে শণাক্ত হয়েছেন।

তবে সাক্ষাৎকারে মন্ত্রী বলেছেন, সাম্প্রতিক ঢেউয়ে কারো মৃত্যু নিয়ে শঙ্কিত নন তিনি, চিন্তিত হাসপাতালে রোগীর চাপ নিয়ে। তবে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো বিধিনিষেধ জারি করার পরিকল্পনা নেই বলেও জানিয়েছেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী অং ইয়ে কুং বলেন, প্রথমত, করোনা মহামারির শুরুর দিনগুলো পেরিয়ে এসেছি। দ্বিতীয়ত সিঙ্গাপুরের অধিকাংশ প্রাপ্তবয়স্ক করোনার টিকার ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন। এছাড়া টিকা ও করোনার ওষুধের পর্যাপ্ত মজুতও আছে।

অং ইয়ে কুং আরও বলেন, দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ, আপনারা নিজ উদ্যোগে যতদূর সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বিধিনিষেধ জারির পরিকল্পনা নেই।