ঢাকা ০৫:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জন্মদিনে ‘চুমু’ উপহার দিতে চান জয়া!

বিনোদন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৬:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৯৬ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য। অভিনয়ের সুবাদে বাংলাদেশেও তাঁর অসংখ্য ভক্ত রয়েছে। অভিনয় করেছেন এ দেশের পরিচালক আশফাক নিপুণের সিরিজেও। ‌‘মহানগর ২’ সিরিজে পর্দায় এসেছেন তিনি। আজ এই অভিনেতার জন্মদিন। এই উপলক্ষে পশ্চিমবাংলায় গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন তিনি। যৌথ সাক্ষাৎকারে আড্ডায় ছিলেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসানও। নির্মাতা সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের আসন্ন ছবি ‘দশম অবতার’-এ জুটি বেঁধেছেন তাঁরা।

ক’দিন আগেই মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটির ট্রেলার। যেখানে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে দেখা গেছে জয়া-অনির্বাণকে। রীতিমতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল তাঁদের চুমুর দৃশ্য। সাক্ষাৎকারে অনির্বাণের কাছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন প্রশ্ন রেখেছিল—‘আপনার আর জয়ার অনস্ক্রিন চুমু তো ভাইরাল!’ জবাবে অভিনেতাে একটু অবাকই হলেন। বললেন, ‘হ্যাঁ, এটা নিয়ে কী সব হচ্ছে না? আমি অবাক হয়েছি!’ পাশাপাশি জানালেন এক টেকেই এই চুমুর দৃশ্যধারণ হয়েছিল।

এ তো গেল অনির্বাণের কথা। তাঁর আজ জন্মদিন। এই বিশেষ দিনে অভিনেতাকে কী উপহার দিতে চান জয়া আহসান? অভিনেত্রী বললেন, ‘অনির্বাণকে জন্মদিনের উপহার? জড়িয়ে ধরে আরেকটা চুমু খেয়ে নেব…আর কী দিয়ে মানুষকে খুশি করা যায়…মানে, মন থেকে চুমু খাব…দেখানোর জন্য নয় কিন্তু (হাসি)।’

পাশাপাশি তাঁদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, দুই দেশেই তাঁরা যে এত জনপ্রিয়, দুজনে দুজনকে কিছু বলতে চান? যা বলা হয়নি, বা যদি কোনও প্রশ্ন থাকে? জবাবে জয়া বললেন, ‘প্রশ্ন? আমার কোনও প্রশ্ন নেই। তবে আমার মাঝে মাঝে মনে হয় ও খুব প্রেশার নেয়, কাজের ক্ষেত্রে। আমার যদি উপায় থাকত, তাহলে ওর হাতটা ধরে বের করে নিয়ে আসতাম, বলতাম ঠিক আছে, অত ভেব না। এই যে অস্থির সময়ের কথা বলছে, সেটারও তো একটা প্রেশার তৈরি হয়। সেই সময়টার থেকে যদি বের করে আনতে পারতাম, ভালো হত। একজন মানুষ হিসাবে মনে হয় ওর মতো একজন যার জীবন সম্পর্কে একটা আন্ডারস্ট্যান্ডিং আছে, যে জীবনকে অন্যভাবে দেখে, তেমন মানুষ একটু কম পাওয়া যায়… তাই আমার হাতে থাকলে ওকে একটু স্বস্তি দিতাম…।’

একই প্রশ্নে অনির্বাণের ভাষ্য, ‘জয়া সম্পর্কে আমার একটা অবজারভেশন আছে বলতে পারো। দীর্ঘদিন জয়ার সঙ্গে কাজ করেছি। তাই সুযোগ হয়েছে কাজের বাইরে আড্ডা দেওয়ার। তার মধ্যেই কথা বলে মনে হয়েছে যে, এত ভিতরের কথা বোধহয় আমার সঙ্গে কেউ বলেনি। ভিতরে কথা মানে ভিতরের মতো করে কথা, যেন আপনজনকে বলছে, আর সেই কথা ফল্গুধারার মতো বেরিয়ে আসছে। আবার এটাও মনে হচ্ছে যে সবকয়টা কথার উত্তরে বা প্রশ্নে রহস্য আছে। মাথা অন্য জায়গায় আছে, এখানে কেবল সে বসে আছে। তখন মনে হয়েছে এই রহস্যটা করার কী দরকার? সেটা আর বলিনি জয়াকে। কারণ রহস্য না থাকলে আর মানুষ কী!’

প্রসঙ্গত, আসন্ন দুর্গাপূজায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে সৃজিতের ‘দশব অবতার’। এ ছবিতে জয়াকে দেখা যাবে মনোবিদের ভূমিকায়। রয়েছেন প্রসেনজিৎ, অনির্বাণ ভট্টাচার্য , যিশু সেনগুপ্তের মতো জনপ্রিয় টলিউড তারকারা। এর আগে অনির্বাণ-জয়া জুটি বেঁধেছিলেন অরিন্দম শীল পরিচালিত ‘ঈগলের চোখ’ সিনেমায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

জন্মদিনে ‘চুমু’ উপহার দিতে চান জয়া!

আপডেট সময় : ০৫:৪৬:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য। অভিনয়ের সুবাদে বাংলাদেশেও তাঁর অসংখ্য ভক্ত রয়েছে। অভিনয় করেছেন এ দেশের পরিচালক আশফাক নিপুণের সিরিজেও। ‌‘মহানগর ২’ সিরিজে পর্দায় এসেছেন তিনি। আজ এই অভিনেতার জন্মদিন। এই উপলক্ষে পশ্চিমবাংলায় গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন তিনি। যৌথ সাক্ষাৎকারে আড্ডায় ছিলেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসানও। নির্মাতা সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের আসন্ন ছবি ‘দশম অবতার’-এ জুটি বেঁধেছেন তাঁরা।

ক’দিন আগেই মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটির ট্রেলার। যেখানে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে দেখা গেছে জয়া-অনির্বাণকে। রীতিমতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল তাঁদের চুমুর দৃশ্য। সাক্ষাৎকারে অনির্বাণের কাছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন প্রশ্ন রেখেছিল—‘আপনার আর জয়ার অনস্ক্রিন চুমু তো ভাইরাল!’ জবাবে অভিনেতাে একটু অবাকই হলেন। বললেন, ‘হ্যাঁ, এটা নিয়ে কী সব হচ্ছে না? আমি অবাক হয়েছি!’ পাশাপাশি জানালেন এক টেকেই এই চুমুর দৃশ্যধারণ হয়েছিল।

এ তো গেল অনির্বাণের কথা। তাঁর আজ জন্মদিন। এই বিশেষ দিনে অভিনেতাকে কী উপহার দিতে চান জয়া আহসান? অভিনেত্রী বললেন, ‘অনির্বাণকে জন্মদিনের উপহার? জড়িয়ে ধরে আরেকটা চুমু খেয়ে নেব…আর কী দিয়ে মানুষকে খুশি করা যায়…মানে, মন থেকে চুমু খাব…দেখানোর জন্য নয় কিন্তু (হাসি)।’

পাশাপাশি তাঁদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, দুই দেশেই তাঁরা যে এত জনপ্রিয়, দুজনে দুজনকে কিছু বলতে চান? যা বলা হয়নি, বা যদি কোনও প্রশ্ন থাকে? জবাবে জয়া বললেন, ‘প্রশ্ন? আমার কোনও প্রশ্ন নেই। তবে আমার মাঝে মাঝে মনে হয় ও খুব প্রেশার নেয়, কাজের ক্ষেত্রে। আমার যদি উপায় থাকত, তাহলে ওর হাতটা ধরে বের করে নিয়ে আসতাম, বলতাম ঠিক আছে, অত ভেব না। এই যে অস্থির সময়ের কথা বলছে, সেটারও তো একটা প্রেশার তৈরি হয়। সেই সময়টার থেকে যদি বের করে আনতে পারতাম, ভালো হত। একজন মানুষ হিসাবে মনে হয় ওর মতো একজন যার জীবন সম্পর্কে একটা আন্ডারস্ট্যান্ডিং আছে, যে জীবনকে অন্যভাবে দেখে, তেমন মানুষ একটু কম পাওয়া যায়… তাই আমার হাতে থাকলে ওকে একটু স্বস্তি দিতাম…।’

একই প্রশ্নে অনির্বাণের ভাষ্য, ‘জয়া সম্পর্কে আমার একটা অবজারভেশন আছে বলতে পারো। দীর্ঘদিন জয়ার সঙ্গে কাজ করেছি। তাই সুযোগ হয়েছে কাজের বাইরে আড্ডা দেওয়ার। তার মধ্যেই কথা বলে মনে হয়েছে যে, এত ভিতরের কথা বোধহয় আমার সঙ্গে কেউ বলেনি। ভিতরে কথা মানে ভিতরের মতো করে কথা, যেন আপনজনকে বলছে, আর সেই কথা ফল্গুধারার মতো বেরিয়ে আসছে। আবার এটাও মনে হচ্ছে যে সবকয়টা কথার উত্তরে বা প্রশ্নে রহস্য আছে। মাথা অন্য জায়গায় আছে, এখানে কেবল সে বসে আছে। তখন মনে হয়েছে এই রহস্যটা করার কী দরকার? সেটা আর বলিনি জয়াকে। কারণ রহস্য না থাকলে আর মানুষ কী!’

প্রসঙ্গত, আসন্ন দুর্গাপূজায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে সৃজিতের ‘দশব অবতার’। এ ছবিতে জয়াকে দেখা যাবে মনোবিদের ভূমিকায়। রয়েছেন প্রসেনজিৎ, অনির্বাণ ভট্টাচার্য , যিশু সেনগুপ্তের মতো জনপ্রিয় টলিউড তারকারা। এর আগে অনির্বাণ-জয়া জুটি বেঁধেছিলেন অরিন্দম শীল পরিচালিত ‘ঈগলের চোখ’ সিনেমায়।