০৫:২২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আটক বন্দিদের মুক্তি দিতে মিসরকে মধ্যস্থতার প্রস্তাব ইসরায়েলের

ইসরায়েলে অভিযান চালিয়ে আটক ইহুদিদের মুক্তির দিতে মিশরকে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিয়েছে তেল আবিব। গতকাল (শনিবার) সকালে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ যোদ্ধারা ইহুদিবাদী সেনাদের দীর্ঘদিনের আগ্রাসনের জবাবে বিশাল আকারের সামরিক অভিযান শুরু করে।

অল্প সময়ের ভেতরে ইসরাইলের অভ্যন্তরে তারা পাঁচ হাজারের বেশি রকেট নিক্ষেপ করে। এই অভিযানে ইসরাইল হতভম্ব হয়ে পড়ে এবং ফিলিস্তিনি যোদ্ধারা ইসরাইলের দখলদার সেনাসহ বহু অবৈধ বসতি স্থাপনকারীকে আটক করে গাজায় নিয়ে যায়। ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর একজন মুখপাত্র বহু মানুষকে ধরে নিয়ে যাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন কিন্তু সঠিক সংখ্যা তিনি প্রকাশ করতে অস্বীকার করেন।

হামাসের একজন শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা ও মিশরের কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তা মার্কিন ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে বলেছেন, প্রতিরোধকামী সংগঠনটি কয়েকজন ইসরাইলি বন্দীর সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলেছে। ফলে বন্দির সঠিক সংখ্যা বলা কঠিন ব্যাপার। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইসরাইল মিশর সরকারকে এসব বন্দির মুক্তি নিশ্চিত করার জন্য আলোচনায় সাহায্য করতে কায়রোকে অনুরোধ জানিয়েছি।

ইসরাইলের গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, গতকালের অভিযান শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৭০০ এর বেশি ইসরাইলি সেনা ও অবৈধ বসতি স্থাপনকারী ইহুদি নিখোঁজ রয়েছে। ইসরাইলি গণমাধ্যম জানিয়েছে, নজিরবিহীন অভিযান শুরুর পর দীর্ঘ সময় পার হয়ে গেলেও এখনো ইসরাইলের কয়টি ইহুদি বসতিতে ফিলিস্তিনের যোদ্ধারা অবস্থান করছে।

এছাড়া, ইসরাইলের বেশ কয়েকটি এলাকায় যুদ্ধ চলছে। হামাসের সামরিক শাখা ইজদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেডও নিশ্চিত করেছে যে, ইসরাইলের কয়েকটি জায়গায় ইহুদিবাদী সেনাদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ চলছে। সুত্র: পার্সটুডে

আটক বন্দিদের মুক্তি দিতে মিসরকে মধ্যস্থতার প্রস্তাব ইসরায়েলের

আপডেট : ০৩:১২:০৮ অপরাহ্ন, রোববার, ৮ অক্টোবর ২০২৩

ইসরায়েলে অভিযান চালিয়ে আটক ইহুদিদের মুক্তির দিতে মিশরকে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিয়েছে তেল আবিব। গতকাল (শনিবার) সকালে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ যোদ্ধারা ইহুদিবাদী সেনাদের দীর্ঘদিনের আগ্রাসনের জবাবে বিশাল আকারের সামরিক অভিযান শুরু করে।

অল্প সময়ের ভেতরে ইসরাইলের অভ্যন্তরে তারা পাঁচ হাজারের বেশি রকেট নিক্ষেপ করে। এই অভিযানে ইসরাইল হতভম্ব হয়ে পড়ে এবং ফিলিস্তিনি যোদ্ধারা ইসরাইলের দখলদার সেনাসহ বহু অবৈধ বসতি স্থাপনকারীকে আটক করে গাজায় নিয়ে যায়। ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর একজন মুখপাত্র বহু মানুষকে ধরে নিয়ে যাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন কিন্তু সঠিক সংখ্যা তিনি প্রকাশ করতে অস্বীকার করেন।

হামাসের একজন শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা ও মিশরের কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তা মার্কিন ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে বলেছেন, প্রতিরোধকামী সংগঠনটি কয়েকজন ইসরাইলি বন্দীর সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলেছে। ফলে বন্দির সঠিক সংখ্যা বলা কঠিন ব্যাপার। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইসরাইল মিশর সরকারকে এসব বন্দির মুক্তি নিশ্চিত করার জন্য আলোচনায় সাহায্য করতে কায়রোকে অনুরোধ জানিয়েছি।

ইসরাইলের গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, গতকালের অভিযান শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৭০০ এর বেশি ইসরাইলি সেনা ও অবৈধ বসতি স্থাপনকারী ইহুদি নিখোঁজ রয়েছে। ইসরাইলি গণমাধ্যম জানিয়েছে, নজিরবিহীন অভিযান শুরুর পর দীর্ঘ সময় পার হয়ে গেলেও এখনো ইসরাইলের কয়টি ইহুদি বসতিতে ফিলিস্তিনের যোদ্ধারা অবস্থান করছে।

এছাড়া, ইসরাইলের বেশ কয়েকটি এলাকায় যুদ্ধ চলছে। হামাসের সামরিক শাখা ইজদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেডও নিশ্চিত করেছে যে, ইসরাইলের কয়েকটি জায়গায় ইহুদিবাদী সেনাদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ চলছে। সুত্র: পার্সটুডে