ঢাকা ০৬:০৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

হামাসের হাতে বন্দী ইসরায়েলের শীর্ষ পর্যায়ের কমান্ডার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৩:২৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৮ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৯২ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গাজা অঞ্চলের জন্য নিযুক্ত ইসরায়েলের সাবেক প্রধান সেনা-কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নিমরোদ আলুনিকে হামাসের হাত থেকে মুক্ত করতে সামরিক অভিযান ও আলোচনা দুটোই শুরু করেছে ইসরায়েল। এর আগে শনিবার (৭ অক্টোবর) ফিলিস্তিন মুক্তি আন্দোলনের সশস্ত্র যোদ্ধা সংগঠন হামাসের অভিযানে বন্দী হয় এই সেনা কমান্ডার।

পার্সটুডের খবরে বলা হয়, ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের অভিযানে গাজা অঞ্চলের জন্য নিযুক্ত সাবেক প্রধান ইসরাইলি সেনা-কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নিমরোদ আলুনি হামাসের মুজাহিদকে বন্দী করা হয়েছে।

দ্য টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়, একটি ছবিতে দেখা গেছে এই জেনারেলকে মাটির ওপর শোয়ানো অবস্থায়, খালি পায়ে, অর্ধ উলঙ্গ ও আন্ডারওয়্যার পরা অবস্থায় টি-শার্টের কলার ধরে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ফিলিস্তিনের গাজা সীমান্তের কাছেই তার বাসভন ছিল। তাকে মুক্ত করতে হামাসের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

হামাসের চালানো এই অভিযানে কমপক্ষে পঞ্চাশ জন ইসরাইলিকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ইসরাইলি সেনা রয়েছেন এবং অন্যরা অবৈধ ইসরাইলি বসতির বাসিন্দা।

ফিলিস্তিনিদের ওপর সাম্প্রতিক দিনগুলোর হত্যাযজ্ঞ ও নৃশংসতার প্রতিবাদে এবং মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল-আকসা মসজিদে বার বার ইহুদিবাদীদের অবমাননার প্রতিশোধ নিতে একযোগে ইসরাইলের বিভিন্ন শহর ও স্থাপনার ওপর হামলা শুরু করেছে ফিলিস্তিনের সংগ্রামী দল হামাস ও ইসলামী জিহাদ। আকস্মিক এ হামলায় এখন পর্যন্ত ৩০০ এর বেশি ইসরাইলি নিহত ও প্রায় ১৬০০ জন আহত হয়েছেন।

এদিকে আলজাজিরা জানিয়েছে, ইসরাইলি হামলায় গাজায় ২৬০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত ও প্রায় এক হাজার ৬১০ জন আহত হয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

হামাসের হাতে বন্দী ইসরায়েলের শীর্ষ পর্যায়ের কমান্ডার

আপডেট সময় : ০৫:৫৩:২৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৮ অক্টোবর ২০২৩

গাজা অঞ্চলের জন্য নিযুক্ত ইসরায়েলের সাবেক প্রধান সেনা-কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নিমরোদ আলুনিকে হামাসের হাত থেকে মুক্ত করতে সামরিক অভিযান ও আলোচনা দুটোই শুরু করেছে ইসরায়েল। এর আগে শনিবার (৭ অক্টোবর) ফিলিস্তিন মুক্তি আন্দোলনের সশস্ত্র যোদ্ধা সংগঠন হামাসের অভিযানে বন্দী হয় এই সেনা কমান্ডার।

পার্সটুডের খবরে বলা হয়, ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের অভিযানে গাজা অঞ্চলের জন্য নিযুক্ত সাবেক প্রধান ইসরাইলি সেনা-কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নিমরোদ আলুনি হামাসের মুজাহিদকে বন্দী করা হয়েছে।

দ্য টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়, একটি ছবিতে দেখা গেছে এই জেনারেলকে মাটির ওপর শোয়ানো অবস্থায়, খালি পায়ে, অর্ধ উলঙ্গ ও আন্ডারওয়্যার পরা অবস্থায় টি-শার্টের কলার ধরে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ফিলিস্তিনের গাজা সীমান্তের কাছেই তার বাসভন ছিল। তাকে মুক্ত করতে হামাসের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

হামাসের চালানো এই অভিযানে কমপক্ষে পঞ্চাশ জন ইসরাইলিকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ইসরাইলি সেনা রয়েছেন এবং অন্যরা অবৈধ ইসরাইলি বসতির বাসিন্দা।

ফিলিস্তিনিদের ওপর সাম্প্রতিক দিনগুলোর হত্যাযজ্ঞ ও নৃশংসতার প্রতিবাদে এবং মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল-আকসা মসজিদে বার বার ইহুদিবাদীদের অবমাননার প্রতিশোধ নিতে একযোগে ইসরাইলের বিভিন্ন শহর ও স্থাপনার ওপর হামলা শুরু করেছে ফিলিস্তিনের সংগ্রামী দল হামাস ও ইসলামী জিহাদ। আকস্মিক এ হামলায় এখন পর্যন্ত ৩০০ এর বেশি ইসরাইলি নিহত ও প্রায় ১৬০০ জন আহত হয়েছেন।

এদিকে আলজাজিরা জানিয়েছে, ইসরাইলি হামলায় গাজায় ২৬০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত ও প্রায় এক হাজার ৬১০ জন আহত হয়েছেন।