ঢাকা ০৪:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ফিলিস্তিন সংঘাতে তৃতীয় পক্ষ ঢুকে পড়বে: রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৩৫:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৮৭ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে চলমান সংঘাতে তৃতীয় পক্ষে যে কোনো সময় ঢুকে পড়তে পারে, এমন ‘ঝুঁকি’ রয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা বলছে, এই কথা বলে আমেরিকার দিকেই আঙ্গুল তুলল ক্রেমলিন।

হামাসের হামলার পর রোববার ইসরায়েলে যুদ্ধজাহাজ ও যুদ্ধবিমান পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে পেন্টাগন। এরপরই এমন মন্তব্য এল রাশিয়ার পক্ষ থেকে। এর মধ্য দিয়ে চলমান সংঘাত নিয়ে সরাসরি মুখ খুলেছেন দেশটির কোনো কর্মকর্তা।

রুশ বার্তা সংস্থা তাসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এ ব্যাপারে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, ‘এই সংঘাতে তৃতীয় পক্ষের জড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি প্রবল। এর আগেই দুই পক্ষকে কোনো না কোনোভাবে সমঝোতা করে সমাধানের পথ বের করতে হবে।’

এদিকে হামাসের হামলায় ইসরায়েলে নিহতের সংখ্যা ৮০০ ছাড়িয়েছে। পাল্টা হামলায় নিহত হয়েছে ৫১০ ফিলিস্তিনি। দুই দেশের মোট ৫ হাজার মানুষ আহত হয়েছে। আল জাজিরা বলছে, গাজা থেকে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার বাসিন্দা। এখনো সংঘাত চলছে।

আল জাজিরা বলছে, হামাসের হামলার জবাবে এবার রিফিউজি ক্যাম্পেও হামলা শুরু করেছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। বিমান হামলা থেকে রক্ষা পেতে এদিক–সেদিক ছুটছে সবাই। তবে তাদের যাওয়ার কোনো জায়গা নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

ফিলিস্তিন সংঘাতে তৃতীয় পক্ষ ঢুকে পড়বে: রাশিয়া

আপডেট সময় : ০১:৩৫:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩

ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে চলমান সংঘাতে তৃতীয় পক্ষে যে কোনো সময় ঢুকে পড়তে পারে, এমন ‘ঝুঁকি’ রয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা বলছে, এই কথা বলে আমেরিকার দিকেই আঙ্গুল তুলল ক্রেমলিন।

হামাসের হামলার পর রোববার ইসরায়েলে যুদ্ধজাহাজ ও যুদ্ধবিমান পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে পেন্টাগন। এরপরই এমন মন্তব্য এল রাশিয়ার পক্ষ থেকে। এর মধ্য দিয়ে চলমান সংঘাত নিয়ে সরাসরি মুখ খুলেছেন দেশটির কোনো কর্মকর্তা।

রুশ বার্তা সংস্থা তাসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এ ব্যাপারে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, ‘এই সংঘাতে তৃতীয় পক্ষের জড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি প্রবল। এর আগেই দুই পক্ষকে কোনো না কোনোভাবে সমঝোতা করে সমাধানের পথ বের করতে হবে।’

এদিকে হামাসের হামলায় ইসরায়েলে নিহতের সংখ্যা ৮০০ ছাড়িয়েছে। পাল্টা হামলায় নিহত হয়েছে ৫১০ ফিলিস্তিনি। দুই দেশের মোট ৫ হাজার মানুষ আহত হয়েছে। আল জাজিরা বলছে, গাজা থেকে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার বাসিন্দা। এখনো সংঘাত চলছে।

আল জাজিরা বলছে, হামাসের হামলার জবাবে এবার রিফিউজি ক্যাম্পেও হামলা শুরু করেছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। বিমান হামলা থেকে রক্ষা পেতে এদিক–সেদিক ছুটছে সবাই। তবে তাদের যাওয়ার কোনো জায়গা নেই।