ঢাকা ১২:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

হামাসের হামলায় ইসরাইলের এক উৎসবেই নিহত ২৬০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৭:৩৮:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৮৫ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হামাসের নজিরবিহীন হামলার পর ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলের নেগেভ মরুভূমি থেকে অন্তত ২৬০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কিব্বুৎজ রি’ইম ও গাজা উপত্যকার কাছাকাছি ওই এলাকায় সুপারনোভা সঙ্গীত উৎসব চলছিল বলে জানা গেছে। ইসরাইলি উদ্ধারকারী সংস্থা জাকা’র বরাতে সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

সংস্থাটি জানায়, শনিবার সকালে ওই অনুষ্ঠানস্থলে হামলা চালায় হামাস যোদ্ধারা। এসময় ঘটনাস্থলেই নিহত হন কয়েকশ’ মানুষ। এদিকে হামালর পর হামাস যোদ্ধারা ঘটনাস্থল থেকে শতাধিক মানুষকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে বলে দাবি করেছে জাকা।

হামলার সময় সঙ্গীত উৎসবে উপস্থিত থাকা অরটেল নামে এক নারী বলেন, ভোরের দিকে অনুষ্ঠানস্থলে হঠাৎ করে সাইরেন বেজে ওঠে, যা ছিলো রকেট হামলার সতর্কতা। এর পরপরই সেখানে গুলির শব্দ শোনা যায়।

ইসরাইলি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সামরিক ইউনিফর্ম পরিহিত প্রায় ৫০ জন হামাস যোদ্ধা একটি ভ্যানে করে সেখানে আসে এবং ফেস্টিভ্যালের বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দেয়। এরপর তারা ভেতরে ঢুকে চারদিকে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রাণ বাঁচাতে লোকজন দিকবেদিক ছোটাছুটি শুরু করেন। এ হামলার কয়েক ঘণ্টা পর ইসরাইলি সেনারা সেখানে উপস্থিত হয়ে জীবিতদের উদ্ধার করে। আহতদের নেয়া হয় হাসপাতালে।

জানা গেছে সুপারনোভা সঙ্গীত উৎসব উপলক্ষে গেলো এক সপ্তাহে নেগেভ মরুভূমিতে অন্তত তিন হাজার মানুষ জড়ো হয়েছিল। যাদের অনেকেই এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের সন্ধানে অভিযানে নেমেছে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

হামাসের হামলায় ইসরাইলের এক উৎসবেই নিহত ২৬০

আপডেট সময় : ০৭:৩৮:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩

হামাসের নজিরবিহীন হামলার পর ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলের নেগেভ মরুভূমি থেকে অন্তত ২৬০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কিব্বুৎজ রি’ইম ও গাজা উপত্যকার কাছাকাছি ওই এলাকায় সুপারনোভা সঙ্গীত উৎসব চলছিল বলে জানা গেছে। ইসরাইলি উদ্ধারকারী সংস্থা জাকা’র বরাতে সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

সংস্থাটি জানায়, শনিবার সকালে ওই অনুষ্ঠানস্থলে হামলা চালায় হামাস যোদ্ধারা। এসময় ঘটনাস্থলেই নিহত হন কয়েকশ’ মানুষ। এদিকে হামালর পর হামাস যোদ্ধারা ঘটনাস্থল থেকে শতাধিক মানুষকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে বলে দাবি করেছে জাকা।

হামলার সময় সঙ্গীত উৎসবে উপস্থিত থাকা অরটেল নামে এক নারী বলেন, ভোরের দিকে অনুষ্ঠানস্থলে হঠাৎ করে সাইরেন বেজে ওঠে, যা ছিলো রকেট হামলার সতর্কতা। এর পরপরই সেখানে গুলির শব্দ শোনা যায়।

ইসরাইলি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সামরিক ইউনিফর্ম পরিহিত প্রায় ৫০ জন হামাস যোদ্ধা একটি ভ্যানে করে সেখানে আসে এবং ফেস্টিভ্যালের বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দেয়। এরপর তারা ভেতরে ঢুকে চারদিকে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রাণ বাঁচাতে লোকজন দিকবেদিক ছোটাছুটি শুরু করেন। এ হামলার কয়েক ঘণ্টা পর ইসরাইলি সেনারা সেখানে উপস্থিত হয়ে জীবিতদের উদ্ধার করে। আহতদের নেয়া হয় হাসপাতালে।

জানা গেছে সুপারনোভা সঙ্গীত উৎসব উপলক্ষে গেলো এক সপ্তাহে নেগেভ মরুভূমিতে অন্তত তিন হাজার মানুষ জড়ো হয়েছিল। যাদের অনেকেই এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের সন্ধানে অভিযানে নেমেছে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।