ঢাকা ১১:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বাংলাদেশকে ৩৩৮ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেবে এডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১০:৩৯:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৯২ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন তৈরির সক্ষমতা বাড়াতে ৩৩ কোটি ৮০ লাখ ডলার ঋণ দিতে চায় এডিবি। এ বছরেই ঋণ চুক্তি সই করা গেলে পুরো ঋণের ১৬ কোটি ৯০ লাখ মিলবে সহজ শর্তে আর বাকি ১৬ কোটি ৯০ লাখ ডলার পাওয়া যাবে নিয়মিত সুদে।

বুধবার (১১ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে একথা জানান, ঢাকায় নিযুক্ত এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিং।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর এসময় বাংলাদেশে তাদের ঋণ সহায়তার চিত্র, পরিকল্পনা মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। জানান, চলতি বছর প্রায় ৩শ’ ৫০ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দিয়েছে এডিবি। আগামী বছরেও ৩শ’ কোটি ডলার ঋণ দেয়ার পরিকল্পনা আছে উন্নয়ন সহযোগী এ সংস্থার।

পরে পরিকল্পনা মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, এডিবির আর্থিক সহায়তা এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কারিগরি সহযোগিতায় দেশীয় প্রতিষ্ঠান এসেন্সিয়াল ড্রাগসে ডেঙ্গু, করোনা, ইনফ্লুয়েঞ্জাসহ নানা রোগের টিকা তৈরি সক্ষমতা গড়ে তোলা হবে।

এছাড়াও ভবিষ্যত প্রয়োজনে নতুন টিকা আবিষ্কারের গবেষণা সক্ষমতাও থাকবে দেশিয় এ প্রতিষ্ঠানটির। প্রকল্পের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগামী ৩১ ডিসেম্বরের আগেই একনেকে অনুমোদনের উদ্যোগ নেয়ার কথাও জানান পরিকল্পনা মন্ত্রী। আর তাহলে ঋণের সুদ বাবদ বিপুল অংকের অর্থ সাশ্রয় হবে বাংলাদেশের।

এসময় এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর বলেন, উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃত পেলে বাংলাদেশ আর কম দামে টিকা পাবে না। এজন্য এর আগেই টিকা তৈরির সক্ষমতা গড়ে তোলা উচিত বাংলাদেশের।

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশকে ৩৩৮ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেবে এডিবি

আপডেট সময় : ১০:৩৯:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন তৈরির সক্ষমতা বাড়াতে ৩৩ কোটি ৮০ লাখ ডলার ঋণ দিতে চায় এডিবি। এ বছরেই ঋণ চুক্তি সই করা গেলে পুরো ঋণের ১৬ কোটি ৯০ লাখ মিলবে সহজ শর্তে আর বাকি ১৬ কোটি ৯০ লাখ ডলার পাওয়া যাবে নিয়মিত সুদে।

বুধবার (১১ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে একথা জানান, ঢাকায় নিযুক্ত এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিং।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর এসময় বাংলাদেশে তাদের ঋণ সহায়তার চিত্র, পরিকল্পনা মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। জানান, চলতি বছর প্রায় ৩শ’ ৫০ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দিয়েছে এডিবি। আগামী বছরেও ৩শ’ কোটি ডলার ঋণ দেয়ার পরিকল্পনা আছে উন্নয়ন সহযোগী এ সংস্থার।

পরে পরিকল্পনা মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, এডিবির আর্থিক সহায়তা এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কারিগরি সহযোগিতায় দেশীয় প্রতিষ্ঠান এসেন্সিয়াল ড্রাগসে ডেঙ্গু, করোনা, ইনফ্লুয়েঞ্জাসহ নানা রোগের টিকা তৈরি সক্ষমতা গড়ে তোলা হবে।

এছাড়াও ভবিষ্যত প্রয়োজনে নতুন টিকা আবিষ্কারের গবেষণা সক্ষমতাও থাকবে দেশিয় এ প্রতিষ্ঠানটির। প্রকল্পের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগামী ৩১ ডিসেম্বরের আগেই একনেকে অনুমোদনের উদ্যোগ নেয়ার কথাও জানান পরিকল্পনা মন্ত্রী। আর তাহলে ঋণের সুদ বাবদ বিপুল অংকের অর্থ সাশ্রয় হবে বাংলাদেশের।

এসময় এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর বলেন, উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃত পেলে বাংলাদেশ আর কম দামে টিকা পাবে না। এজন্য এর আগেই টিকা তৈরির সক্ষমতা গড়ে তোলা উচিত বাংলাদেশের।