ঢাকা ১১:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

চীনে নতুন ৮ ভাইরাস, মহামারি নিয়ে শঙ্কা

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০:০৯:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৪০১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চীনের হাইনান প্রদেশে নতুন আটটি ভাইরাসের সন্ধান পেয়েছেন দেশটির বিজ্ঞানীরা। এসব ভাইরাস ইঁদুরের মধ্যে পাওয়া গেছে। বিজ্ঞানীরা সতর্ক করে বলেছেন যে, প্রজাতির বাধা অতিক্রম করতে পারলে এসব ভাইরাস মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হওয়ার উচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে। আর এ থেকে পরবর্তী মহামারি তৈরি হওয়ার শঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য মেট্রোর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলীয় প্রদেশ হলো হাইনান। সেখানকার ইঁদুর থেকে সাত শতাধিক নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করেছে বিজ্ঞানীরা। এদের মধ্যে আটটি নতুন ভাইরাস পাওয়া গেছে , যা আগে কখনও দেখা যায় নি। এসব ভাইরাসের একটির সঙ্গে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের মিল রয়েছে। এ ভাইরাসটির কারণে কোভিড-১৯ মহামারির সংক্রমণ শুরু হয়।

এ ভাইরাস আবিষ্কার হওয়ার বিষয়টি বিজ্ঞানভিত্তিক সাময়িকী ভাইরোলজিকা সিনিকায় প্রকাশিত হয়েছে। এ গবেষণাটি সম্পাদনা করেছে চীনের বিজ্ঞানী ড. শি ঝেংলি। চীনা এই বিজ্ঞানী বাদুড়ের শরীরে করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করে ব্যাট ওমেন হিসেবে খ্যাতি পান।

মানুষের দেহে এসব ভাইরাসের প্রভাব জানতে বিজ্ঞানীরা ভাইরাসগুলোর ওপর আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার আহ্বান জানিয়েছেন।

চীনের গবেষণা সংস্থা চাইনিজ সোসাইটি ফর মাইক্রোবায়োলজির (সিএসএম) গবেষণা প্রকাশ করে থাকে ভাইরোলজিকা সিনিকা নামের সাময়িকীটি। সিএসএম চীনের একটি মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সংস্থা।

নিউজটি শেয়ার করুন

চীনে নতুন ৮ ভাইরাস, মহামারি নিয়ে শঙ্কা

আপডেট সময় : ১০:০৯:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩

চীনের হাইনান প্রদেশে নতুন আটটি ভাইরাসের সন্ধান পেয়েছেন দেশটির বিজ্ঞানীরা। এসব ভাইরাস ইঁদুরের মধ্যে পাওয়া গেছে। বিজ্ঞানীরা সতর্ক করে বলেছেন যে, প্রজাতির বাধা অতিক্রম করতে পারলে এসব ভাইরাস মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হওয়ার উচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে। আর এ থেকে পরবর্তী মহামারি তৈরি হওয়ার শঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য মেট্রোর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলীয় প্রদেশ হলো হাইনান। সেখানকার ইঁদুর থেকে সাত শতাধিক নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করেছে বিজ্ঞানীরা। এদের মধ্যে আটটি নতুন ভাইরাস পাওয়া গেছে , যা আগে কখনও দেখা যায় নি। এসব ভাইরাসের একটির সঙ্গে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের মিল রয়েছে। এ ভাইরাসটির কারণে কোভিড-১৯ মহামারির সংক্রমণ শুরু হয়।

এ ভাইরাস আবিষ্কার হওয়ার বিষয়টি বিজ্ঞানভিত্তিক সাময়িকী ভাইরোলজিকা সিনিকায় প্রকাশিত হয়েছে। এ গবেষণাটি সম্পাদনা করেছে চীনের বিজ্ঞানী ড. শি ঝেংলি। চীনা এই বিজ্ঞানী বাদুড়ের শরীরে করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করে ব্যাট ওমেন হিসেবে খ্যাতি পান।

মানুষের দেহে এসব ভাইরাসের প্রভাব জানতে বিজ্ঞানীরা ভাইরাসগুলোর ওপর আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার আহ্বান জানিয়েছেন।

চীনের গবেষণা সংস্থা চাইনিজ সোসাইটি ফর মাইক্রোবায়োলজির (সিএসএম) গবেষণা প্রকাশ করে থাকে ভাইরোলজিকা সিনিকা নামের সাময়িকীটি। সিএসএম চীনের একটি মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সংস্থা।