ঢাকা ০৫:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ফিলিস্তিনি নিহতের সংখ্যা নিয়ে সন্দেহ বাইডেনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৭:৫৫:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৮৪ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ইসরায়েলের চলমান হামলায় গাজায় এ পর্যন্ত সাড়ে ৬ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। তবে ১৮ দিনে এত ফিলিস্তিনি নিহত হওয়া নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গতকাল বুধবার হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট এমন মন্তব্য করেন।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দাবি, ৭ অক্টোবর থেকে চলমান ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত সাড়ে ৬ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যা প্রায় ২ হাজার ৭০০। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকেরা এই প্রসঙ্গটি তোলেন। তাঁরা বলেন, নিহতের সংখ্যা দিয়ে বোঝা যাচ্ছে, বেসামরিক মৃত্যুর হার কমাতে আমেরিকার আহ্বান উপেক্ষা করছে ইসরায়েল।

জবাবে বাইডেন বলেন, ‘ফিলিস্তিনিরা নিহত হওয়ার যে সংখ্যা উল্লেখ করছে, তা সত্যি কি না আমি জানি না। আমি নিশ্চিত যে নিরীহ মানুষ নিহত হচ্ছে। যুদ্ধের কারণে এমন মূল্য চোকাতে হচ্ছে তাঁদের। তবে ফিলিস্তিনিরা যে সংখ্যার কথা বলছে, এ বিষয়ের ওপর আমার কোনো আস্থা নেই।’

কিন্তু ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ হতাহতের যে পরিসংখ্যান দিচ্ছে তা যথার্থ মনে করেন বিশ্লেষকেরা। মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের (এইচআরডব্লিউ) ইসরায়েল ও ফিলিস্তিন শাখার পরিচালক ওমর শাকির আল জাজিরাকে বলেন, ‘ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ যে তথ্য দিচ্ছে তা বিশ্বাসযোগ্য। এইচআরডব্লিউ তিন দশক ধরে ফিলিস্তিনের অধিকৃত অঞ্চল নিয়ে কাজ করছে। দীর্ঘ এ সময়ে আমরা অনেক যুদ্ধ ও সংঘাতের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছি। আমাদের সঙ্গে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষে তথ্য-উপাত্তের তেমন একটা গরমিল দেখা যায়নি।’

ইসরায়েলের বিমান হামলায় পরিবার হারালেন আল জাজিরার সাংবাদিকইসরায়েলের বিমান হামলায় পরিবার হারালেন আল জাজিরার সাংবাদিক
৭ অক্টোবর হামাসের হামলার পর থেকে গাজায় প্রতিদিন বিমান হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানিয়েছে, চলমান যুদ্ধে গাজায় হাজারো বোমা ফেলেছে তাঁরা। সে হিসেবে জনাকীর্ণ অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় এত বেশি মানুষ হতাহত হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয় বলে মনে করেন বিশ্লেষকেরা।

ওমর শাকির এই বিষয়ে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আমাদের হাতে স্যাটেলাইট ইমেজ রয়েছে। যা ঘটছে তার অনেক ভিডিও ফুটেজও আমাদের হাতে আছে। এসব বিষয় বিশ্লেষণ করলেও ফিলিস্তিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া হতাহতের পরিসংখ্যানটা অযৌক্তিক মনে হবে না।’

নিউজটি শেয়ার করুন

ফিলিস্তিনি নিহতের সংখ্যা নিয়ে সন্দেহ বাইডেনের

আপডেট সময় : ০৭:৫৫:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩

ইসরায়েলের চলমান হামলায় গাজায় এ পর্যন্ত সাড়ে ৬ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। তবে ১৮ দিনে এত ফিলিস্তিনি নিহত হওয়া নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গতকাল বুধবার হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট এমন মন্তব্য করেন।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দাবি, ৭ অক্টোবর থেকে চলমান ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত সাড়ে ৬ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যা প্রায় ২ হাজার ৭০০। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকেরা এই প্রসঙ্গটি তোলেন। তাঁরা বলেন, নিহতের সংখ্যা দিয়ে বোঝা যাচ্ছে, বেসামরিক মৃত্যুর হার কমাতে আমেরিকার আহ্বান উপেক্ষা করছে ইসরায়েল।

জবাবে বাইডেন বলেন, ‘ফিলিস্তিনিরা নিহত হওয়ার যে সংখ্যা উল্লেখ করছে, তা সত্যি কি না আমি জানি না। আমি নিশ্চিত যে নিরীহ মানুষ নিহত হচ্ছে। যুদ্ধের কারণে এমন মূল্য চোকাতে হচ্ছে তাঁদের। তবে ফিলিস্তিনিরা যে সংখ্যার কথা বলছে, এ বিষয়ের ওপর আমার কোনো আস্থা নেই।’

কিন্তু ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ হতাহতের যে পরিসংখ্যান দিচ্ছে তা যথার্থ মনে করেন বিশ্লেষকেরা। মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের (এইচআরডব্লিউ) ইসরায়েল ও ফিলিস্তিন শাখার পরিচালক ওমর শাকির আল জাজিরাকে বলেন, ‘ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ যে তথ্য দিচ্ছে তা বিশ্বাসযোগ্য। এইচআরডব্লিউ তিন দশক ধরে ফিলিস্তিনের অধিকৃত অঞ্চল নিয়ে কাজ করছে। দীর্ঘ এ সময়ে আমরা অনেক যুদ্ধ ও সংঘাতের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছি। আমাদের সঙ্গে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষে তথ্য-উপাত্তের তেমন একটা গরমিল দেখা যায়নি।’

ইসরায়েলের বিমান হামলায় পরিবার হারালেন আল জাজিরার সাংবাদিকইসরায়েলের বিমান হামলায় পরিবার হারালেন আল জাজিরার সাংবাদিক
৭ অক্টোবর হামাসের হামলার পর থেকে গাজায় প্রতিদিন বিমান হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানিয়েছে, চলমান যুদ্ধে গাজায় হাজারো বোমা ফেলেছে তাঁরা। সে হিসেবে জনাকীর্ণ অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় এত বেশি মানুষ হতাহত হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয় বলে মনে করেন বিশ্লেষকেরা।

ওমর শাকির এই বিষয়ে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আমাদের হাতে স্যাটেলাইট ইমেজ রয়েছে। যা ঘটছে তার অনেক ভিডিও ফুটেজও আমাদের হাতে আছে। এসব বিষয় বিশ্লেষণ করলেও ফিলিস্তিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া হতাহতের পরিসংখ্যানটা অযৌক্তিক মনে হবে না।’