ঢাকা ০৭:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

কাজাখস্তানে কয়লা খনিতে আগুন, নিহত ৩২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৭:৩৪:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৯১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মধ্য কাজাখস্তানে একটি কয়লা খনিতে অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ৩২ জন শ্রমিক নিহত হয়েছে। এছাড়া অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আরও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

দেশটির স্টিল জায়ান্ট আর্সেলর মিত্তালের মালিকানাধীন একটি খনিতে আগুন লাগার পর প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এতে বলা হয়েছে, কাজাখস্তানে স্টিল জায়ান্ট এই কোম্পানির খনির কার্যক্রম জাতীয়করণের একটি চুক্তি নিশ্চিত হওয়ার পর একই দিনে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় কোস্টেনকো খনিতে ২৫২ জন কাজ করছিলেন এবং এর মধ্যে আরও ১৪ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়া অগ্নিকাণ্ডে আহত আরও ১৮ জন এ পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়েছেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কাজাখ প্রেসিডেন্ট কাসিম-জোমার্ট তোকায়েভ জাতীয়করণের জন্য চাপ দেওয়ার কারণে অগ্নিকা-ের আগে দেশের বৃহত্তম এই স্টিল মিলে বিনিয়োগ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

বার্তাসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, বিদ্যমান পরিস্থিতিতে কাজাখ কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করার এবং ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে আর্সেলর মিত্তাল। সংস্থাটি বলেছে, জাতীয়করণ প্রক্রিয়ার প্রথম পর্যায় চলছে এবং ‘যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তারা এই লেনদেন চূড়ান্ত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ’।

বিবিসি বলছে, কাজাখস্তানে আর্সেলর মিত্তাল পরিচালিত কোনও সাইটে গত দুই মাসে এ নিয়ে দ্বিতীয় মারাত্মক ঘটনা ঘটল। এর আগে গত আগস্টে দেশটির কারাগান্ডা খনিতে আগুন লেগে চার খনি শ্রমিক নিহত হয়েছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

কাজাখস্তানে কয়লা খনিতে আগুন, নিহত ৩২

আপডেট সময় : ০৭:৩৪:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩

মধ্য কাজাখস্তানে একটি কয়লা খনিতে অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ৩২ জন শ্রমিক নিহত হয়েছে। এছাড়া অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আরও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

দেশটির স্টিল জায়ান্ট আর্সেলর মিত্তালের মালিকানাধীন একটি খনিতে আগুন লাগার পর প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এতে বলা হয়েছে, কাজাখস্তানে স্টিল জায়ান্ট এই কোম্পানির খনির কার্যক্রম জাতীয়করণের একটি চুক্তি নিশ্চিত হওয়ার পর একই দিনে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় কোস্টেনকো খনিতে ২৫২ জন কাজ করছিলেন এবং এর মধ্যে আরও ১৪ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়া অগ্নিকাণ্ডে আহত আরও ১৮ জন এ পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়েছেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কাজাখ প্রেসিডেন্ট কাসিম-জোমার্ট তোকায়েভ জাতীয়করণের জন্য চাপ দেওয়ার কারণে অগ্নিকা-ের আগে দেশের বৃহত্তম এই স্টিল মিলে বিনিয়োগ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

বার্তাসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, বিদ্যমান পরিস্থিতিতে কাজাখ কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করার এবং ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে আর্সেলর মিত্তাল। সংস্থাটি বলেছে, জাতীয়করণ প্রক্রিয়ার প্রথম পর্যায় চলছে এবং ‘যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তারা এই লেনদেন চূড়ান্ত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ’।

বিবিসি বলছে, কাজাখস্তানে আর্সেলর মিত্তাল পরিচালিত কোনও সাইটে গত দুই মাসে এ নিয়ে দ্বিতীয় মারাত্মক ঘটনা ঘটল। এর আগে গত আগস্টে দেশটির কারাগান্ডা খনিতে আগুন লেগে চার খনি শ্রমিক নিহত হয়েছিলেন।