০৪:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জনগণের বিজয় অতি সন্নিকটে: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। জনগণের বিজয় অতি সন্নিকটে। আজ বুধবার (১৫ নভেম্বর) সকালে অবরোধের সমর্থনে করা মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ছয়টায় শাহবাগ থেকে শেরাটন মোড় পর্যন্ত রিজভীর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় তিনি বলেন, অবৈধ সরকার ও নির্বাচন কমিশন আরেকটি পাতানো নির্বাচন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। সেজন্য নানা কার্যকলাপ শুরু করেছে। কিন্তু বাংলাদেশের জনগণ আর কোনো প্রহসন মেনে নেবে না।

সরকারের উদ্দেশ্যে রিজভী আরও বলেন, পদত্যাগ করা ছাড়া আপনাদের হাতে আর কোনো অপশন নেই। তালবাহানা না করে অবিলম্বে পদত্যাগ করুন। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। কোনো ভোট ডাকাতির নির্বাচন বা বিনা ভোটের নির্বাচন বাংলাদেশের জনগণ হতে দেবে না।

মিছিলে বিএনপির স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, সাবেক কাউন্সিলর নিলুফার ইয়াসমিন, ছাত্রদল নেতা ডাক্তার আউয়াল, যুবদল নেতা সোহেল আহমেদ, ছাত্রদলের ডাক্তার লোহানি, সুমাইয়া, উর্মি, মহিউদ্দিন মাহি, ডা. সাব্বির, ডা. প্রতীক, ডা. মমি, ডা. জিসান, ঢাকা কলেজ ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ইমন, ঢাবি বিজয় একাত্তর হলের জিএস বিএম কাওসার, মহানগর ছাত্রদল নেতা আমান, মিরাজ, আসাদ, সিয়াম, আইএইচটি সাবেক সদস্য সচিব রাফসান হোসেন, বাঙলা কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক কাজী কাওসার, শেকৃবি সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন, এটিআই আহ্বায়ক জলিল-সহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে সকাল সোয়া ৭টার দিকে মহিলা দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে মিছিল বের করেন রুহুল কবির রিজভী। মিছিলটা পল্টনে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, কেন্দ্রীয় নেত্রী অ্যাডভোকেট রুনা, পিয়ারা মোস্তফা, পান্না ইয়াসমিন, জাকিয়া সুলতানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জনগণের বিজয় অতি সন্নিকটে: রিজভী

আপডেট : ০৭:৫৬:৪৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৫ নভেম্বর ২০২৩

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। জনগণের বিজয় অতি সন্নিকটে। আজ বুধবার (১৫ নভেম্বর) সকালে অবরোধের সমর্থনে করা মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ছয়টায় শাহবাগ থেকে শেরাটন মোড় পর্যন্ত রিজভীর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় তিনি বলেন, অবৈধ সরকার ও নির্বাচন কমিশন আরেকটি পাতানো নির্বাচন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। সেজন্য নানা কার্যকলাপ শুরু করেছে। কিন্তু বাংলাদেশের জনগণ আর কোনো প্রহসন মেনে নেবে না।

সরকারের উদ্দেশ্যে রিজভী আরও বলেন, পদত্যাগ করা ছাড়া আপনাদের হাতে আর কোনো অপশন নেই। তালবাহানা না করে অবিলম্বে পদত্যাগ করুন। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। কোনো ভোট ডাকাতির নির্বাচন বা বিনা ভোটের নির্বাচন বাংলাদেশের জনগণ হতে দেবে না।

মিছিলে বিএনপির স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, সাবেক কাউন্সিলর নিলুফার ইয়াসমিন, ছাত্রদল নেতা ডাক্তার আউয়াল, যুবদল নেতা সোহেল আহমেদ, ছাত্রদলের ডাক্তার লোহানি, সুমাইয়া, উর্মি, মহিউদ্দিন মাহি, ডা. সাব্বির, ডা. প্রতীক, ডা. মমি, ডা. জিসান, ঢাকা কলেজ ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ইমন, ঢাবি বিজয় একাত্তর হলের জিএস বিএম কাওসার, মহানগর ছাত্রদল নেতা আমান, মিরাজ, আসাদ, সিয়াম, আইএইচটি সাবেক সদস্য সচিব রাফসান হোসেন, বাঙলা কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক কাজী কাওসার, শেকৃবি সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন, এটিআই আহ্বায়ক জলিল-সহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে সকাল সোয়া ৭টার দিকে মহিলা দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে মিছিল বের করেন রুহুল কবির রিজভী। মিছিলটা পল্টনে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, কেন্দ্রীয় নেত্রী অ্যাডভোকেট রুনা, পিয়ারা মোস্তফা, পান্না ইয়াসমিন, জাকিয়া সুলতানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।