ঢাকা ১০:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

নির্বাচন কমিশন এখন শেখ হাসিনা ওয়াজেদের: কায়সার কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৯:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৩৮৮ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নির্বাচন কমিশন এখন শেখ হাসিনা ওয়াজেদের। ক্ষমতা নবায়নের এজেন্ট হিসেবে তারা কাজ করছেন। সত্যি নির্বাচন কমিশন হলে তাদের কাছে সুযোগ ছিলো সুষ্ঠু নির্বাচন করা। তাদের ঘোষিত তফসিল দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাদের ঘোষিত তফসিলে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি।

বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বিএনপির আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।তিনি বলেন, বিএনপি রাজনীতি করে দেশের জনগণকে নিয়ে। দেশের জনগণ এই তফসিল প্রত্যাখ্যান করায়, বিএনপি এবং সমমনা দলগুলোও এটি প্রত্যাখ্যান করেছে।

বিএনপির আইন সম্পাদক বলেন, তফসিল বাতিলের দাবিতে অতি শীগগিরই আমাদের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। সেই সঙ্গে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে একটি অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন যেন হয় সে কর্মসূচীও ঘোষণা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এখন যে অবস্থা যাচ্ছে, বাংলাদেশ উত্তর কোরিয়ার দিকে হাঁটছে। এ অবস্থা থেকে ফিরিয়ে আনার জন্যে, ভোটাধিকার প্রয়োগ করার জয়ে আমরা কাজ করছি। এর জন্যে বাঁধা আসছে, আরও বাধাবিপত্তি আসবে। কিন্তু সবসময় মানুষের জয় হয়েছে, মানবতার জয় হয়েছে।

কায়সার কামাল বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে সেই নির্বাচন যে সুষ্ঠু হয় না তার উদাহরণ ২০১৪ এবং ২০১৮তে আছে। এই নির্বাচন কমিশনও একটি অবৈধ সরকারের ফসল। তাই এ নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিলে নির্বাচনে যাবেনা বিএনপি।

নিউজটি শেয়ার করুন

নির্বাচন কমিশন এখন শেখ হাসিনা ওয়াজেদের: কায়সার কামাল

আপডেট সময় : ০৬:৩৯:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

নির্বাচন কমিশন এখন শেখ হাসিনা ওয়াজেদের। ক্ষমতা নবায়নের এজেন্ট হিসেবে তারা কাজ করছেন। সত্যি নির্বাচন কমিশন হলে তাদের কাছে সুযোগ ছিলো সুষ্ঠু নির্বাচন করা। তাদের ঘোষিত তফসিল দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাদের ঘোষিত তফসিলে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি।

বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বিএনপির আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।তিনি বলেন, বিএনপি রাজনীতি করে দেশের জনগণকে নিয়ে। দেশের জনগণ এই তফসিল প্রত্যাখ্যান করায়, বিএনপি এবং সমমনা দলগুলোও এটি প্রত্যাখ্যান করেছে।

বিএনপির আইন সম্পাদক বলেন, তফসিল বাতিলের দাবিতে অতি শীগগিরই আমাদের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। সেই সঙ্গে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে একটি অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন যেন হয় সে কর্মসূচীও ঘোষণা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এখন যে অবস্থা যাচ্ছে, বাংলাদেশ উত্তর কোরিয়ার দিকে হাঁটছে। এ অবস্থা থেকে ফিরিয়ে আনার জন্যে, ভোটাধিকার প্রয়োগ করার জয়ে আমরা কাজ করছি। এর জন্যে বাঁধা আসছে, আরও বাধাবিপত্তি আসবে। কিন্তু সবসময় মানুষের জয় হয়েছে, মানবতার জয় হয়েছে।

কায়সার কামাল বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে সেই নির্বাচন যে সুষ্ঠু হয় না তার উদাহরণ ২০১৪ এবং ২০১৮তে আছে। এই নির্বাচন কমিশনও একটি অবৈধ সরকারের ফসল। তাই এ নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিলে নির্বাচনে যাবেনা বিএনপি।