০৫:২৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এরদোগানের সঙ্গে জার্মান চ্যান্সেলরের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়

ফিলিস্তিনের গাজা ভূখন্ডে ইসরায়েলের আগ্রাসন নিয়ে জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজের সাথে প্রকাশ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান। জার্মানি সফরে শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) জার্মান চ্যান্সেলরের সাথে বৈঠক করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

পরে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে, জার্মানির চ্যান্সেলর বলেন, ইসরায়েলের আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে। অক্টোবরে ইসরায়েলের ভেতরে হামাস বর্বর হামলা চালিয়ে শিশু ও বৃদ্ধদের হত্যা করেছিলো বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তবে গাজায় আগ্রাসন চালানোর সময়ে বেসামরিক নাগরিক হতাহতের বিষয়ে ইসরায়েলের সতর্ক থাকা উচিত বলে মত দেন জার্মান চ্যান্সেলর।

ওলাফ শলৎজের এমন ইসরায়েলপন্থী মন্তব্যের পর প্রকাশ্যেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইহুদি নিধন করেছিলো জার্মানি। তাই সেই দায়বদ্ধতা থেকেই ইসরায়েলপন্থী কথা বলছে জার্মানি। তবে ইসরায়েলের প্রতি তুরস্কের তেমন কোন দায় না থাকায় আঙ্কারা স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

তিনি ইসরায়েলকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ করেন। গাজায় ইসরায়েলি সেনা বাহিনীর ‘গণহত্যাকে’ সমর্থন করায় জার্মানি ও পশ্চিমাদেশগুলোর কড়া সমালোচনা করেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। সূত্র: রয়টার্স, আল জাজিরা

এরদোগানের সঙ্গে জার্মান চ্যান্সেলরের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়

আপডেট : ০৪:০৮:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩

ফিলিস্তিনের গাজা ভূখন্ডে ইসরায়েলের আগ্রাসন নিয়ে জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজের সাথে প্রকাশ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান। জার্মানি সফরে শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) জার্মান চ্যান্সেলরের সাথে বৈঠক করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

পরে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে, জার্মানির চ্যান্সেলর বলেন, ইসরায়েলের আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে। অক্টোবরে ইসরায়েলের ভেতরে হামাস বর্বর হামলা চালিয়ে শিশু ও বৃদ্ধদের হত্যা করেছিলো বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তবে গাজায় আগ্রাসন চালানোর সময়ে বেসামরিক নাগরিক হতাহতের বিষয়ে ইসরায়েলের সতর্ক থাকা উচিত বলে মত দেন জার্মান চ্যান্সেলর।

ওলাফ শলৎজের এমন ইসরায়েলপন্থী মন্তব্যের পর প্রকাশ্যেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইহুদি নিধন করেছিলো জার্মানি। তাই সেই দায়বদ্ধতা থেকেই ইসরায়েলপন্থী কথা বলছে জার্মানি। তবে ইসরায়েলের প্রতি তুরস্কের তেমন কোন দায় না থাকায় আঙ্কারা স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

তিনি ইসরায়েলকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ করেন। গাজায় ইসরায়েলি সেনা বাহিনীর ‘গণহত্যাকে’ সমর্থন করায় জার্মানি ও পশ্চিমাদেশগুলোর কড়া সমালোচনা করেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। সূত্র: রয়টার্স, আল জাজিরা