ঢাকা ০৯:৪৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সৈকত থেকে পাথর তুললেই লাখ লাখ টাকা জরিমানা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:২৫:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৭১ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পর্যটকরা সৈকত থেকে পাথর ও বালি তুললে গুণতে হবে লাখ লাখ টাকা জরিমানা। এমন নিয়মই করল স্পেনের ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের ল্যানজারোট এবং ফুয়ের্তেভেনচুরা দ্বীপ কর্তৃপক্ষ। মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, দ্বীপগুলোতে যাওয়া পর্যটকদের বালি ও পাথর সংগ্রহের বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করা হয়েছে। এই সতর্ক উপেক্ষা করে পাথর ও বালি সংগ্রহ করলে ১২৮ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৭ হাজার ৭৫৭ টাকা) থেকে ২ হাজার ৫৬৩ পাউন্ড (৩ লাখ ৫৫ হাজার ৫৭৫ টাকা) পর্যন্ত জরিমানা গুণতে হবে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, পর্যটকরা ভ্রমণের স্মৃতি ধরে রাখতে পাথর ও বালি নিয়ে যায়, যা দ্বীপগুলোর বাস্তুতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ কারণে ল্যানজারোট দ্বীপ থেকে প্রতিবছর এক টনের বেশি আগ্নেয়গিরির উপাদান হারিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া ফুয়ের্তেভেনচুরা দ্বীপ থেকে প্রতিমাসে এক টন বালি নিয়ে যাচ্ছেন পর্যটকরা। এতে দ্বীপগুলো প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে।

নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, যেসব পর্যটক পপকর্ন আকারের পাথর নেবেন তাঁদের ১২৮ পাউন্ড থেকে ৫১২ পাউন্ড পর্যন্ত জরিমানা গুণতে হবে। আরও বড় পাথর নিলে জরিমানার পরিমাণও বাড়বে।

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে পর্যটকদের আনাগোনা বেড়েছে। এরমধ্যেই সেখানে এ জরিমানার নিয়ম করা হলো। সম্প্রতি ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের টেনেরিফ দ্বীপে খরার কারণে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এ অবস্থাতেও সেখানকার একটি হোটেলে আসা অতিথিরা স্থানীয়দের চেয়ে চার গুণ বেশি পানি ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ সাতটি প্রধান দ্বীপ নিয়ে গঠিত। এগুলো হলো-টেনেরিফ, গ্রান ক্যানারিয়া, ল্যানজারোট, ফুয়ের্তেভেনতুরা, লা পালমা, লা গোমেরা এবং এল হিয়েরো। প্রতিটি দ্বীপের নিজস্ব স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য এবং আকর্ষণ রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

সৈকত থেকে পাথর তুললেই লাখ লাখ টাকা জরিমানা!

আপডেট সময় : ১২:২৫:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

পর্যটকরা সৈকত থেকে পাথর ও বালি তুললে গুণতে হবে লাখ লাখ টাকা জরিমানা। এমন নিয়মই করল স্পেনের ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের ল্যানজারোট এবং ফুয়ের্তেভেনচুরা দ্বীপ কর্তৃপক্ষ। মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, দ্বীপগুলোতে যাওয়া পর্যটকদের বালি ও পাথর সংগ্রহের বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করা হয়েছে। এই সতর্ক উপেক্ষা করে পাথর ও বালি সংগ্রহ করলে ১২৮ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৭ হাজার ৭৫৭ টাকা) থেকে ২ হাজার ৫৬৩ পাউন্ড (৩ লাখ ৫৫ হাজার ৫৭৫ টাকা) পর্যন্ত জরিমানা গুণতে হবে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, পর্যটকরা ভ্রমণের স্মৃতি ধরে রাখতে পাথর ও বালি নিয়ে যায়, যা দ্বীপগুলোর বাস্তুতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ কারণে ল্যানজারোট দ্বীপ থেকে প্রতিবছর এক টনের বেশি আগ্নেয়গিরির উপাদান হারিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া ফুয়ের্তেভেনচুরা দ্বীপ থেকে প্রতিমাসে এক টন বালি নিয়ে যাচ্ছেন পর্যটকরা। এতে দ্বীপগুলো প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে।

নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, যেসব পর্যটক পপকর্ন আকারের পাথর নেবেন তাঁদের ১২৮ পাউন্ড থেকে ৫১২ পাউন্ড পর্যন্ত জরিমানা গুণতে হবে। আরও বড় পাথর নিলে জরিমানার পরিমাণও বাড়বে।

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে পর্যটকদের আনাগোনা বেড়েছে। এরমধ্যেই সেখানে এ জরিমানার নিয়ম করা হলো। সম্প্রতি ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের টেনেরিফ দ্বীপে খরার কারণে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এ অবস্থাতেও সেখানকার একটি হোটেলে আসা অতিথিরা স্থানীয়দের চেয়ে চার গুণ বেশি পানি ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ সাতটি প্রধান দ্বীপ নিয়ে গঠিত। এগুলো হলো-টেনেরিফ, গ্রান ক্যানারিয়া, ল্যানজারোট, ফুয়ের্তেভেনতুরা, লা পালমা, লা গোমেরা এবং এল হিয়েরো। প্রতিটি দ্বীপের নিজস্ব স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য এবং আকর্ষণ রয়েছে।