ঢাকা ০৯:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

হাসপাতালে ৪ শতাধিক মানুষকে হত্যার অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:০৫:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৪৯ বার পড়া হয়েছে
৭১ নিউজ বিডির সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

এবার লেবাননে জাতিসংঘের ৪ শান্তিরক্ষী আহতের ঘটনায় আঙুল উঠেছে ইসরাইলের দিকে। সেই সাথে, গাজার আল-শিফা হাসপাতালে ৪ শতাধিক মানুষকে হত্যারও গুরুতর অভিযোগ উঠেছে দখলদার বাহিনীর বিরুদ্ধে।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন-হামাসকে সমর্থনের অভিযোগে প্রায় ছয় মাস ধরে লেবাননে হিজবুল্লাহ’র সম্ভাব্য অবস্থানে ড্রোন ও মিসাইল হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরাইল। ইসরাইলের সীমান্ত লাগোয়া লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের রামিশ গ্রামে বিস্ফোরণে আহত হয় টহলে থাকা জাতিসংঘের তিন শান্তিরক্ষী ও এক দোভাষী। হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাদের।

এর তীব্র নিন্দা ও গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেস। শান্তিরক্ষীদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব নিশ্চিতের আহ্বান আবারও মনে করিয়ে দেন তিনি। এই ঘটনায় ইসরাইলের ড্রোন হামলাকে দায়ি করেছে লেবানন। অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইসরাইল।

এদিকে, ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গাজার আল-শিফা হাসপাতালে ১৩ দিনের অবরোধে রোগী, স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়াও নারী-শিশুসহ সেখান আশ্রিত ফিলিস্তিনিদের নির্বিচারে হত্যা করেছে দখলদার সেনারা। বর্তমানে কমপক্ষে একশ’ সাতজন রোগী ও ৬০ জন স্বাস্থ্যসেবা কর্মী হাসপতালটিতে অবরুদ্ধ আছেন।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিমকে হাসপাতালটির ভেতরে ঢুকতে দিচ্ছে না ইসরাইলি সেনারা। গাজা ও পশ্চিম তীরে বর্বর হামলায় এপর্যন্ত ৩২ হাজার ছয়শো’র বেশি ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল।

নিউজটি শেয়ার করুন

হাসপাতালে ৪ শতাধিক মানুষকে হত্যার অভিযোগ

আপডেট সময় : ০১:০৫:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

এবার লেবাননে জাতিসংঘের ৪ শান্তিরক্ষী আহতের ঘটনায় আঙুল উঠেছে ইসরাইলের দিকে। সেই সাথে, গাজার আল-শিফা হাসপাতালে ৪ শতাধিক মানুষকে হত্যারও গুরুতর অভিযোগ উঠেছে দখলদার বাহিনীর বিরুদ্ধে।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন-হামাসকে সমর্থনের অভিযোগে প্রায় ছয় মাস ধরে লেবাননে হিজবুল্লাহ’র সম্ভাব্য অবস্থানে ড্রোন ও মিসাইল হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরাইল। ইসরাইলের সীমান্ত লাগোয়া লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের রামিশ গ্রামে বিস্ফোরণে আহত হয় টহলে থাকা জাতিসংঘের তিন শান্তিরক্ষী ও এক দোভাষী। হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাদের।

এর তীব্র নিন্দা ও গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেস। শান্তিরক্ষীদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব নিশ্চিতের আহ্বান আবারও মনে করিয়ে দেন তিনি। এই ঘটনায় ইসরাইলের ড্রোন হামলাকে দায়ি করেছে লেবানন। অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইসরাইল।

এদিকে, ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গাজার আল-শিফা হাসপাতালে ১৩ দিনের অবরোধে রোগী, স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়াও নারী-শিশুসহ সেখান আশ্রিত ফিলিস্তিনিদের নির্বিচারে হত্যা করেছে দখলদার সেনারা। বর্তমানে কমপক্ষে একশ’ সাতজন রোগী ও ৬০ জন স্বাস্থ্যসেবা কর্মী হাসপতালটিতে অবরুদ্ধ আছেন।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিমকে হাসপাতালটির ভেতরে ঢুকতে দিচ্ছে না ইসরাইলি সেনারা। গাজা ও পশ্চিম তীরে বর্বর হামলায় এপর্যন্ত ৩২ হাজার ছয়শো’র বেশি ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল।