০৪:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হার দিয়ে সুপার এইট শুরু বাংলাদেশের

ধারে-ভারে বাংলাদেশ থেকে বহু এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপ ইতিহাসেও সফল দল তারা। অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং ইনিংসে যখন দ্বিতীয় দফায় বৃষ্টি শুরু হয়, তখনই ধারণা করা হচ্ছিল ম্যাচটি বাংলাদেশের নাগালেই বাইরে চলে গেছে।

আজ শুক্রবার (২১ জুন) বাংলাদেশের ইনিংস শেষ হতেই বৃষ্টি নামে অ্যান্টিগার আকাশে। অবশেষে বৃষ্টির কারণে আর খেলা মাঠে গড়ায়নি। এর ফলে ২৮ রানে জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১৪০ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ রান আসে অধিনায়ক শান্তর (৪১ রান) ব্যাট থেকে। তাওহীদ হৃদয় করেন ৪০ রান। এই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখী হয়ে খেলতে থাকে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার হেড ও ওয়ার্নার। মাঝে একবার বৃষ্টির জন্য খেলা বন্ধ হলেও তখনও এগিয়ে ছিল অজিরা।

যদিও বৃষ্টির পর খেলা শুরু হলে রিশাদের ঘূর্ণিতে দুই উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। প্রথম হেডকে বোল্ড করেন এই লেগ স্পিনার। এরপরের ওভারে অজি অধিনায়ক মার্শকেও তুলে নেন তিনি। এরপর অবশ্য আর সুযোগ দেয়নি অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা। ওয়ার্নার ও ম্যাক্সওয়েল পেটাতে থাকে মোস্তাফিজ-রিশাদদের। এরই মাঝে দলীয় ১০০ রান পূরণ হলে নামে বৃষ্টি। আর এই বৃষ্টিতেই জয় পায় অজিরা।

এদিকে, প্যাট কামিন্স তার ক্যারিয়ারের প্রথম হ্যাটট্রিক তুলে নিয়েছেন আজ। প্রথমে মাহমুদউল্লাহকে বোল্ড করেন তিনি। তার পরের বলেই মেহেদি হাসানকে তুলে নেন অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে ও টেস্ট অধিনায়ক। আর ২০তম ওভারের প্রথম বলে হৃদয়কে তুলে নিয়ে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন কামিন্স। হ্যাটট্রিককের কারণে ম্যাচসেরাও হয়েছে কামিন্স।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সপ্তম এবং অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় বোলার হিসেবে এই কীর্তি গড়লেন কামিন্স। অস্ট্রেলিয়ার প্রথম বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করেছিলেন ব্রেট লি। ২০০৭ সালে এই বাংলাদেশের বিপক্ষেই হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, সুপার এইটে আরও দুটি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। পরের দুই ম্যাচের প্রতিপক্ষ ভারত ও আফগানিস্তান।

হার দিয়ে সুপার এইট শুরু বাংলাদেশের

আপডেট : ০১:০১:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

ধারে-ভারে বাংলাদেশ থেকে বহু এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপ ইতিহাসেও সফল দল তারা। অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং ইনিংসে যখন দ্বিতীয় দফায় বৃষ্টি শুরু হয়, তখনই ধারণা করা হচ্ছিল ম্যাচটি বাংলাদেশের নাগালেই বাইরে চলে গেছে।

আজ শুক্রবার (২১ জুন) বাংলাদেশের ইনিংস শেষ হতেই বৃষ্টি নামে অ্যান্টিগার আকাশে। অবশেষে বৃষ্টির কারণে আর খেলা মাঠে গড়ায়নি। এর ফলে ২৮ রানে জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১৪০ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ রান আসে অধিনায়ক শান্তর (৪১ রান) ব্যাট থেকে। তাওহীদ হৃদয় করেন ৪০ রান। এই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখী হয়ে খেলতে থাকে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার হেড ও ওয়ার্নার। মাঝে একবার বৃষ্টির জন্য খেলা বন্ধ হলেও তখনও এগিয়ে ছিল অজিরা।

যদিও বৃষ্টির পর খেলা শুরু হলে রিশাদের ঘূর্ণিতে দুই উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। প্রথম হেডকে বোল্ড করেন এই লেগ স্পিনার। এরপরের ওভারে অজি অধিনায়ক মার্শকেও তুলে নেন তিনি। এরপর অবশ্য আর সুযোগ দেয়নি অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা। ওয়ার্নার ও ম্যাক্সওয়েল পেটাতে থাকে মোস্তাফিজ-রিশাদদের। এরই মাঝে দলীয় ১০০ রান পূরণ হলে নামে বৃষ্টি। আর এই বৃষ্টিতেই জয় পায় অজিরা।

এদিকে, প্যাট কামিন্স তার ক্যারিয়ারের প্রথম হ্যাটট্রিক তুলে নিয়েছেন আজ। প্রথমে মাহমুদউল্লাহকে বোল্ড করেন তিনি। তার পরের বলেই মেহেদি হাসানকে তুলে নেন অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে ও টেস্ট অধিনায়ক। আর ২০তম ওভারের প্রথম বলে হৃদয়কে তুলে নিয়ে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন কামিন্স। হ্যাটট্রিককের কারণে ম্যাচসেরাও হয়েছে কামিন্স।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সপ্তম এবং অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় বোলার হিসেবে এই কীর্তি গড়লেন কামিন্স। অস্ট্রেলিয়ার প্রথম বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করেছিলেন ব্রেট লি। ২০০৭ সালে এই বাংলাদেশের বিপক্ষেই হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, সুপার এইটে আরও দুটি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। পরের দুই ম্যাচের প্রতিপক্ষ ভারত ও আফগানিস্তান।