০৫:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ

  • ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট : ০৪:৫৮:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ১৯২ দেখেছেন

শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি বাঁধায় পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হলো ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। চলতি এশিয়া কাপের প্রথম দল হিসেবে সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে বাবর-রিজওয়ানরা। বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় দুই দলকে ১ পয়েন্ট করে ভাগাভাগি করতে হয়েছে।

শনিবার শ্রীলঙ্কার পাল্লেকেল্লে স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাটে নেমে ৪৮ ওভার ৫ বলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান তোলে ভারত। এরপর বৃষ্টি বাধায় আর ব্যাটিংয়ে নামতে পারেনি পাকিস্তান।

আগে ব্যাটে নেমে শুরুতেই বিপাকে পড়ে ভারত। দলীয় ১৫ রানের মাথায় শাহিন আফ্রিদির বলে বোল্ড হন রোহিত শর্মা। এরপর এই বোলার ফেরান ৪ রান করা বিরাট কোহলিকে। দলীয় ৪৮ রানের মাথায় শ্রেয়াস আইয়ার এবং ৬৬ রানের মাথায় শুবমান গিল ফিরলে বিপাকে পড়ে ভারত।

এরপর পঞ্চম উইকেটে জুটি গড়েন ইশান কিষাণ ও হার্দিক পান্ডিয়া। তাদের জুটিতে আসে ১৩৮ রান। দলীয় ২০৪ রানের মাথায় ইশান কিষাণকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন হারিস রউফ। এই ব্যাটার ৮৩ বলে করেন ৮২।

কিছুদূর এগিয়ে তার সঙ্গী হার্দিক পান্ডিয়া ফেরেন ৯০ বলে ৮৭ রান করে। এরপর আর কেউই দাঁড়াতে পারেনি পাকিস্তানি বোলারদের তোপের মুখে। ৭ বল বাকি থাকতেই অলআউট হয় ২৬৬ রানে।

শাহিন আফ্রিদি চারটি এবং হারিস রউফ ও নাসিম শাহ নেন তিনটি করে উইকেট। এরপর টানা বৃষ্টিতে আর ব্যাটিংয়ে নামা হয়নি পাকিস্তানের। ফলে প্রথম ম্যাচে নেপালকে হারানো পাকিস্তান এক জয় ও এক ড্র নিয়ে চলে গেছে সুপার ফোরে। ভারতের সুপার ফোর নিশ্চিত করতে হলে এখন হারাতে হবে নেপালকে।

বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ

আপডেট : ০৪:৫৮:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি বাঁধায় পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হলো ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। চলতি এশিয়া কাপের প্রথম দল হিসেবে সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে বাবর-রিজওয়ানরা। বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় দুই দলকে ১ পয়েন্ট করে ভাগাভাগি করতে হয়েছে।

শনিবার শ্রীলঙ্কার পাল্লেকেল্লে স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাটে নেমে ৪৮ ওভার ৫ বলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান তোলে ভারত। এরপর বৃষ্টি বাধায় আর ব্যাটিংয়ে নামতে পারেনি পাকিস্তান।

আগে ব্যাটে নেমে শুরুতেই বিপাকে পড়ে ভারত। দলীয় ১৫ রানের মাথায় শাহিন আফ্রিদির বলে বোল্ড হন রোহিত শর্মা। এরপর এই বোলার ফেরান ৪ রান করা বিরাট কোহলিকে। দলীয় ৪৮ রানের মাথায় শ্রেয়াস আইয়ার এবং ৬৬ রানের মাথায় শুবমান গিল ফিরলে বিপাকে পড়ে ভারত।

এরপর পঞ্চম উইকেটে জুটি গড়েন ইশান কিষাণ ও হার্দিক পান্ডিয়া। তাদের জুটিতে আসে ১৩৮ রান। দলীয় ২০৪ রানের মাথায় ইশান কিষাণকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন হারিস রউফ। এই ব্যাটার ৮৩ বলে করেন ৮২।

কিছুদূর এগিয়ে তার সঙ্গী হার্দিক পান্ডিয়া ফেরেন ৯০ বলে ৮৭ রান করে। এরপর আর কেউই দাঁড়াতে পারেনি পাকিস্তানি বোলারদের তোপের মুখে। ৭ বল বাকি থাকতেই অলআউট হয় ২৬৬ রানে।

শাহিন আফ্রিদি চারটি এবং হারিস রউফ ও নাসিম শাহ নেন তিনটি করে উইকেট। এরপর টানা বৃষ্টিতে আর ব্যাটিংয়ে নামা হয়নি পাকিস্তানের। ফলে প্রথম ম্যাচে নেপালকে হারানো পাকিস্তান এক জয় ও এক ড্র নিয়ে চলে গেছে সুপার ফোরে। ভারতের সুপার ফোর নিশ্চিত করতে হলে এখন হারাতে হবে নেপালকে।